আওয়ামী লীগ

অসাম্প্রদায়িক চেতনা প্রসঙ্গে (২)

মাসুদ রানা

‘অসাম্প্রদায়িক চেতনা’র উদ্দেশ্য

এই লেখার প্রথম পর্বে ‘অসাম্প্রদায়িক চেতনা’র স্বরূপ  উন্মোচন করে দেখানো হয়েছে যে, এটি একটি বিমূর্ত ধারণা, যার মধ্যে কোনো ইতিবাচক সুনির্দিষ্টতা নেই। কিন্তু তা সত্ত্বেও বাংলাদেশের পঞ্চদশ বুদ্ধিজীবী সাম্প্রদায়িকতা-বিরোধী জাতীয় সম্মেললনে এই চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানিয়ে জেলায় জেলায় কর্মসূচি পালনের কথা বলেছেন। ...»

অসাম্প্রদায়িক চেতনা প্রসঙ্গে (১)

মাসুদ রানা

অসাম্প্রদায়িক চেতনার সম্মেলন

বাংলাদেশের বিশিষ্ট ১৫ নাগরিক - বিখ্যাত বুদ্ধিজীবী - উদ্যোগী হয়ে ‘সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী জাতীয় সম্মেলন' অনুষ্ঠিত করেছেন আজ ঢাকায়। বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত বিডিনিউজ টুয়ান্টিফৌর জানাচ্ছে, এই সম্মেলন থেকে বুদ্ধিজীবীরা ‘অসাম্প্রদায়িক চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হবার ডাক' দিয়েছেন। ডাক দেয়া হয়েছে দেশবাসীর প্রতি। ...»

পরাবাস্তব প্রতিবেদনঃ অরণ্যে বিশ্বজিৎ

মাসুদ রানা

অরণ্যে যায়নি বিশ্বজিৎ দাস। ছিলো জনারণ্যে - নিশ্চিত মানুষের মাঝে; বাড়ীতে দাদার সাথে, বৌদির সাথে, রাস্তায় পথচারীর সাথে, দোকানে ক্রেতার সাথে। সর্বত্রই মানুষ। মানুষে ভরা দেশ, বাংলাদেশ। মানুষে ভরা নগরী, ঢাকা। এখানে অরণ্য কোথায়?

কিন্তু জীবনের শেষ দিনটিতে বিশ্বজিৎ দাসের বিশ্বাস উবে গেলো। ভীষণ ভয় পেলো বিশ্বজিৎ। কোথায় কোনো মানুষ দেখতে পাচ্ছে না সে। তার চারদিকে শুধু হিংস্র নেকড়ে, দাঁতাল শুয়োর আর বন্য কুকুর। কোথা থেকে এলো এই জানোয়ারের দল? কিছুই ঠাহর করতে পারেনি নগরবিহারী বিশ্বজিৎ। ...»

একটি যথার্থ খবরঃ হাসিনা বিঁধলেন মেননকে

মাসুদ রানা

খবর
খবর কাকে বলে? এর উত্তরে, আজ থেকে একশো ত্রিশ বছর আগে, ১৮৮২ সালে, নিউ ইয়র্ক সান পত্রিকার সিটি এডিটর ও প্রখ্যাত মার্কিন সাংবাদিক জন বি বৌগার্ট বলেছিলেন, ‘ইট ইজ নট এ্যা নিউজ ইফ এ্যা ডগ বাইট্‌স্‌ এ্যা ম্যান, বাট ইট ইজ এ্যা নিউজ ইফ এ্যা ম্যান বাইট্‌স্‌ এ্যা ডগ’ - অর্থাৎ, কুকুর যদি মানুষকে কামড়ায়, তাতে খবর হয় না, কিন্তু মানুষ যদি কুকুরকে কামড়ায়, তাহলে একটি খবর হয়। ...»

বাম-বিকল্পঃ ভূমিকা

মাসুদ রানা

প্রেক্ষাপট
বাংলাদেশের রাজনীতিতে অপরিপক্কতার সঙ্কট চলছে দীর্ঘ কাল ধরে। বাঙালী, জাতি হিসেবে অপরিপক্ক। বাংলাদেশ, রাষ্ট্র হিসেবে অপরিপক্ক। ব্যর্থতার ছিন্নবস্ত্র-পরা বাংলাদেশের দুই প্রধান রাজনৈতিক দল তস্য চ্যালা-দল নিয়ে জোট বেঁধে একে অন্যের দিকে ভ্রুকুটি হেনে এন্তার খিস্তি করে চলেছে বিশ্ববাজারে পাতা ভিক্ষার্থিনীর মাদুর থেকে পরস্পরকে তাড়াতে। বাজারী দাতারা বদান্য বদ-নজরে, তবুও বিরক্ত বঙ্গীয় ভিক্ষার্থিনী-খিস্তির অশ্রাব্য নিনাদে। ...»

কাদের সিদ্দিকীঃ শাড়ি না-পরা বীরপুরুষ

মাসুদ রানা

কাদের সিদ্দিকী প্রায়শঃ নিজের বীরত্ব বুঝাতে মুক্তিযুদ্ধে তাঁর ভূমিকা এবং শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ করার কাহিনী উল্লেখ করেন। সর্বশেষ আজ মঙ্গলবারেও করলেন।

আমি মনে করি না, এটি তাঁর বারবার উল্লেখ করা প্রয়োজন আছে। কারণ, মুক্তিযুদ্ধে তাঁর বিশিষ্ট ভূমিকা বাংলাদেশের সবাই জানেন। তিনি সে-জন্য শ্রদ্ধেয়। তিনি বীর। তিনি তাঁর নেতা শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের জন্য সক্রিয় পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। সেটিও তাঁকে বীরত্বের সম্মান দিয়েছে। ...»

ইলিয়াস গুপ্ত সুরঞ্জিত সুপ্ত

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় এক ভাষণে দেশটির এক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক বলেছেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অর্থ কেলেঙ্কারি চাপা দিতে ইলিয়াস আলির ইস্যু সৃষ্টি করা হয়েছে। অর্থাৎ ইলিয়াস আলিকে ‘গুপ্ত’ করে কোলাহল তৈরী করে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ঘটনাকে ‘সুপ্ত’ করে দিতে চাইছে আওয়ামীগ সরকার। ...»

কোকোর মৃত্যুর আফটারম্যাথঃ শেখ হাসিনার সঠিক নীতির ভুল পদক্ষেপ

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দলের নেত্রী খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর পরবাসে মৃত্যুলীন হওয়ার সংবাদ পড়ে একটি নৌটে লিখেছিলাম

“খালেদা জিয়ার স্বল্পালোচিত কনিষ্ঠ পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর অকাল মৃত্যু তাঁর পরিবারের বাইরে সবচেয়ে বড়ো চ্যালেইঞ্জ তৈরি করে থাকবে শেখ হাসিনার জন্য। ...»

শেখ হাসিনার সাফল্যের ষ্ট্র্যাটেজিঃ একটি সরল হাইপোথেসিস

মাসুদ রানা

আমি শেখ হাসিনার রাজনীতির সমর্থক নই, কিন্তু তিনি যে তাঁর রাজনৈতিক কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা ও সুরক্ষায় ষ্ট্র্যাটেজিকভাবে সফল, তা স্বীকার করতে আমার কোনো সঙ্কোচ নেই। আমি নিরাসক্ত বিচারে মনে করি, স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন সবেচেয়ে ব্যর্থ, আর শেখ হাসিনা হচ্ছেন সবচেয়ে সফল রাজনীতিক। উদাহরণ স্বরূপ বলা যায়ঃ ...»

মুক্তিযুদ্ধ কবে এই দুই দলের দখল থেকে মুক্তি পাবে?

যায়নুদ্দিন সানী

তর্ক-বিতর্কের বাজার হঠাৎ করেই বেশ গরম হয়ে উঠেছে। বাজারটা বেশ কিছুদিন থেকেই নেতিয়ে ছিল। সব দিকেই আওয়ামী নেতাদের একচ্ছত্র আধিপত্য ছিলো। জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে গিনেস বুকে রেকর্ড-প্রচেষ্টা, তাতে ইসলামী ব্যাংকের তিন কোটি টাকা অনুদান, তারপর সে-অনুদানের চেক ফেরত — কোনো ঘটনাতেই বিএনপি নামক দলটির অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না। বিএনপির খবর বলতে ছিলো কিছু গ্রেফতার আর উপজেলা নির্বাচন। প্রথম দুই দফা নির্বাচনে উপজেলাগুলোতে কিছুটা ঘুরে দাঁড়ালেও ৪র্থ দফায় ধরাশায়ী হলো বিএনপি। তাঁর চেয়েও বড় কথা, শত চেষ্টা করেও ‘ভোট কারচুপি’ অভিযোগটাকে ঠি ...»

Syndicate content