অভিমত

অভিজিৎ হত্যাঃ ১ম ও ১০ম দিবসে প্রতিক্রিয়া

মাসুদ রানা

[ঢাকাতে বাঙালী মার্কিন নাগরিক অভিজিৎ রায়ের হত্যাকাণ্ডের দিন আমি একটি তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া লিখেছিলাম। তারপর দশ দিন কেটে গেলো। ঘটনাটি মন থেকে সরছে না। আজও লিখলাম অভিজিৎ হত্যা নিয়ে। - মাসুদ রানা]

১ম দিবস।। ব্লগার অভিজিৎ রায় খুনঃ ভয়ঙ্কর মৃত্যুর তৃতীয় ধারা

আমেরিকা থেকে মাতৃভূমি বাংলাদেশে বেড়াতে-যাওয়া ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায়কে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়। তাঁর এই হত্যাকাণ্ডের সংবাদটা পড়ে আমি যেনো বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। ...»

এলো আবার ফেব্রুয়ারী

মাসুদ রানা

ইংরেজি ফেব্রুয়ারীঃ বাঙালীর ভাষা-ভণ্ডামোর মাস

গ্রিগোরিয়ান বা ক্রিশ্চিয়ান ক্যালণ্ডারের দ্বিতীয় মাস ফ্রেব্রুয়ারীর আজ শুরু। এই পঞ্জিকা ও মাসগুলোকে বাঙালী-সাধারণ ইংরেজি পঞ্জিকা ও মাস বলেই জানেন। কারণ, বাঙালী জাতি তার ঔপনিবেশিক ইংরেজ শাসকদের মাধ্যমেই এই পঞ্জিকার সাথে পরিচিত হয়। ...»

কোকোর মৃত্যুর আফটারম্যাথঃ শেখ হাসিনার সঠিক নীতির ভুল পদক্ষেপ

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দলের নেত্রী খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর পরবাসে মৃত্যুলীন হওয়ার সংবাদ পড়ে একটি নৌটে লিখেছিলাম

“খালেদা জিয়ার স্বল্পালোচিত কনিষ্ঠ পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর অকাল মৃত্যু তাঁর পরিবারের বাইরে সবচেয়ে বড়ো চ্যালেইঞ্জ তৈরি করে থাকবে শেখ হাসিনার জন্য। ...»

বক্তৃতার নৌটঃ এ্যাণ্ডার্সনের তত্ত্বের আলোকে ইত্তেফাকের ভূমিকা

মাসুদ রানা

[গত সোমবার পূর্ব-লণ্ডনের মণ্টেফিউরি সেণ্টারে অনুষ্ঠিত ইত্তেফাকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে আমি কী বলেছিলাম, তার হুবহু পুনরুৎপাদন সম্ভব হতো, যদি আমার কাছে তা রেকর্ড করা থাকতো। কিন্তু আমার কাছে তা নেই। তবে আমি আলোচনায় কী বলবো, তার কিছু বুলেট-পয়েণ্টে নৌট নিয়েছিলাম বক্তৃতা করার আগে টেবিলে বসে। আমি সেই নৌট থেকেই আমার বক্তব্য পুনর্গঠিত করে নীচে প্রকাশ করলাম। - মাসুদ রানা] ...»

সুনামির অলৌকিক শিশু তুলসিঃ পেনাং মায়ামি বীচের সেই মেয়েটি

মাসুদ রানা

তুলসির দেখা
মেয়েটি আপন মনে খেলতে-খেলতে, থেকে-থেকে, উদাস হয়ে সমূদ্রের দিকে তাকিয়ে দেখে। দীর্ঘক্ষণ! যেনো কারও অপেক্ষা করছে সে। কিংবা কোনো দূর অতীত রোমন্থন করছে। উঁচু পাথরটায় চড়ে সে সমূদ্র দেখে। তারপর আবার নীচে নেমে খেলতে বসে। আবার পাথরটার উপর বসে। উদাস চোখে সমুদ্র দেখে। বয়স বড়ো জোর পাঁচ-ছয়।

লক্ষ্য করলাম, মেয়েটির খেলার সরঞ্জাম হচ্ছে ধুলো-বালির ভাত, ফুল-পাতার তরকারি এবং প্লাষ্টিকের ক্ষুদে থালা-বাসন। বুঝতে অসুবিধে হয়নি সে তার নিজস্ব ক্যাফে বানিয়ে অদৃশ্য খদ্দেরদের সার্ভ করছে। ...»

শিক্ষার সমস্যা প্রসঙ্গেঃ বিশ্বাস বনাম গবেষণা

মাসুদ রানা

১.
গত সোমবারে লণ্ডন সিটি হলে - অর্থাৎ, লণ্ডন মেয়েরের কার্যালয়ে - 'স্কুল-টু-স্কুল নেটওয়্যার্ক এ্যাপ্রৌচ' নামে একটি ওয়ার্কশপ ছিলো। আমাকে যেতে হয়েছিলো আমার স্কুলের প্রতিনিধি হিসেবে।

আমার বলা উচিত, আমাদের সেণ্ট পৌলস ওয়ে ট্রাষ্ট স্কুল সর্বশেষ HR Ofsted ইনস্পেকশনে সর্বক্ষেত্র 'Outstanding' পেয়ে বর্তমানে টাওয়ার হ্যামলেটসে সবচেয়ে আর্কষণীয় স্কুলে পরিণত হয়েছে। বিষয়টি এ-বছর ব্যাপক মিডিয়া কাভারেইজ পেয়েছে। ...»

মবিনুল হায়দার চৌধুরীকে প্রশ্নঃ 'বাসদ (ঘোষবাদী)' নয় কেনো?

মাসুদ রানা

দ্বিখণ্ডিত বাসদের একাংশের বিশেষ কেন্দ্রীয় সম্মেলন হয়ে গেলো চার দিন ব্যাপী মবিনুল হায়দার চৌধুরীর নেতৃত্বে ঢাকায় ২০-২৩ নভেম্বরে। এই সম্মেলনের কী করা হবে তা জানানো হয়েছিলো সম্মেলনের আগে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া বিবৃতিতে, যেখানে বস্তুতঃ অর্থপূর্ণ কোনো কথাই বলা হয়নি।

ঘোষণায় উল্লেখ না করা সত্ত্বেও আজ দু'টি উৎপাদনের কথা আজ জানা গেলো ফেইসবুক মাধ্যমে। এদের একটি হচ্ছে দলের নতুন নামকরণ এবং নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন বা মনোনয়ন। আমার বর্তমান লেখাটি নামকরণে সীমাবদ্ধ রাখবো। ...»

ডিজিট্যাল বাংলাদেশঃ রাজনৈতিক স্বরূপ সন্ধানে

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন “ডিজিট্যাল বাংলাদেশ” তৈরি করার। এর দ্বারা তিনি কী বুঝিয়েছিলেন, তা অনেকের কাছেই তখন স্পষ্ট হয়নি। এমনিতেই, ডিজিটায়ন বা ডিজিটাইজেশন একটি জটিল বিষয়।

ডিজিট্যাল অংক ...»

শেখ হাসিনার সাফল্যের ষ্ট্র্যাটেজিঃ একটি সরল হাইপোথেসিস

মাসুদ রানা

আমি শেখ হাসিনার রাজনীতির সমর্থক নই, কিন্তু তিনি যে তাঁর রাজনৈতিক কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা ও সুরক্ষায় ষ্ট্র্যাটেজিকভাবে সফল, তা স্বীকার করতে আমার কোনো সঙ্কোচ নেই। আমি নিরাসক্ত বিচারে মনে করি, স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন সবেচেয়ে ব্যর্থ, আর শেখ হাসিনা হচ্ছেন সবচেয়ে সফল রাজনীতিক। উদাহরণ স্বরূপ বলা যায়ঃ ...»

অনশন ধর্মঘটঃ শ্রেণী-সংগ্রামের ভ্রান্ত পদ্ধতি

মাসুদ রানা

ঈদের চাঁদে কলঙ্ক
বাংলাদেশে এবার যেনো ঈদের চাঁদ উঠেছে বিশাল কলঙ্কের দাগ নিয়ে। উৎসবের আয়োজন ছাপিয়ে, চাঁদরাত ২৮শে জুলাই থেকে, ঢাকার তোবা ফ্যাশনের পোশাক শ্রমিকেরা অনশন করছেন। তাঁরা অনশন করছেন মালিকের কাছ থেকে তাঁদের তিন মাসের বকেয়া মজুরি ও বৌনাস আদায়ের লক্ষ্যে।

৩১শে জুলাই আমি তোবা ফ্যাশন কারখানায় গিয়েছিলাম অনশনরত সংগ্রামী শ্রমিকদের দেখার জন্য। দেখলাম, অনেকেই দুর্বল হয়ে পড়েছেন। অনেকেরই বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিয়েছে। ...»

Syndicate content