অভিমত

লেখক-গোয়েন্দা সখ্যঃ ফ্যাসিবাদ কতো দূর?

মাসুদ রানা

জনৈক আসিফ মহিউদ্দীন ফেইসবুকে আমাকে গত সপ্তাহান্তে বন্ধুত্বের অনুরোধ পাঠালে আমি তাঁকে নির্দ্বিধায় গ্রহণ করি। সেই সূত্রে তাঁর স্টেইটাস-সমূহ আমার প্রতি প্রত্যহ প্রবাহিত।

আজ প্রভাতে আসিফ মহিউদ্দীনের দু’টি স্টেইটাস আমার মনোযোগ কাড়ে, যার একটিতে ‘রকমারি.কম’ নামের একটি আন্তর্জালিক বাণিজ্য প্রতিষ্ঠান বর্জনের ডাক এবং অন্যটিতে সেই প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে তাঁর নিজের গৃহীত কতিপয় পদক্ষেপের বিবরণ।

রকমারি বর্জন ...»

টনি বেন, আহমেদ বেন বেল্লা ও শেখ মুজিব

মাসুদ রানা

সাম্রাজ্যবাদী যুদ্ধের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও ব্রিটিশ রাজনীতির প্রধান-স্রোতধারায় বিদ্রোহী ব্যক্তিত্ব টনি বেনের মৃত্যুতে, অনেকেই তাঁর স্মৃতি নিয়ে লিখছেন। এ-সমস্ত স্মৃতি তর্পণের আবহে তাঁকে নিয়ে আমারও একটি স্মৃতি প্রকাশের বাসনা জন্ম নিলো। তবে আমার সে-স্মৃতির সাথে জড়িয়ে আছে আরও দু’টি নাম - আহমেদ বেন বেল্লা ও শেখ মুজিবুর রহমান। ...»

জাতি-ভাষা-লিপিঃ নাগরি প্রসঙ্গ (২)

মাসুদ রানা

যাঁরা নাগরিকে সিলেটের ‘ভাষা’ বলেন, তাঁদের একটি কল্পকাহিনী আছে, যা রীতিমতো একটি ষড়যন্ত্র তত্ত্ব। কোনো ব্যক্তি-বিশেষের ওপর দোষারোপ করতে চাই না  বলে একটি নৈর্ব্যক্তিক উৎস উইকিপীডিয়া থেকে উদ্ধৃত করছি সে-কাহিনীটিঃ

“Sylheti Nagari or Syloti Nagri (Silôṭi Nagôri) is the original script used for writing the Sylheti language. It is an almost extinct script, this is because the Sylheti Language itself was reduced to only dialect status after Bangladesh gained independence and because it did not make sense for a dialect to have its own script, its use was heavily discouraged.” ...»

জাতি-ভাষা-লিপি ও নাগরি প্রসঙ্গ (১)

মাসুদ রানা

একটি জনপ্রিয় ধারণাকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিধ্বস্ত করতে লিখছি আজকের এ-লেখা। জানি, দীর্ঘ-কালের লালিত বিশ্বাসে আঘাত পেলে বিক্ষুব্ধ হবেন অনেকেই। অবশ্য, তাতে আক্ষেপের কিছু নেই। তবে প্রত্যাশা থাকবে, তাঁদের প্রতিক্রিয়া যেনো ব্যক্তি-কেন্দ্রিক না হয়ে বিষয়-কেন্দ্রিক থাকে, যেভাবে থাকা উচিত বুদ্ধিবৃত্তিক বৈজ্ঞানিক বিতর্কে। আর তাতে বিষয় সম্পর্কে পাঠকের বোধ সমৃদ্ধ হয়, যা গালাগালিতে হয় না। ...»

শিক্ষার বাণিজ্যিকরণঃ অকস্মাৎ অর্থোদ্ধার!

মাসুদ রানা

কখনও একা ও কখনও বহুজন মিলে, কখনও ব্যক্তি ও কখনও সংগঠন থেকে প্রচুর লেখা হয়েছে এবং এখনও হচ্ছে শিক্ষার বাণিজ্যিকরণ কিংবা বাণিজ্যিকীকরণের বিরুদ্ধে। কিন্তু কোথায়ও সংজ্ঞা নেই শিক্ষার বাণিজ্যিকরণের, যদিও উষ্মা আছে প্রচুর।

এই যখন পরিস্থিতি, তখন আমার আজকের লেখার শুরু হোক একটু নাটকীয়ভাবে। আমি বলতে চাইছি, নাটকের সংলাপাকারে লিখিত হোক আজকের লেখা। তাতে একঘেয়েমি কাটবে। ...»

বিতর্কঃ মত প্রকাশ ও ঘৃণা প্রচার

মাসুদ রানা

স্বাধীনতাঃ মত প্রকাশ বনাম ঘৃণা প্রচার’ শিরোনামে দেড় বছর আগে আমার একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয় সাপ্তাহিক পত্রিকায় ও ইউকেবেঙ্গলিতে। লেখাটি ছিলো বিশ্বে সে-সময়ে ঘটমান একটি ঘটনার প্রেক্ষাপটে। ...»

আমি ভাষা খুঁজে পাই

মতিন সরকার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ছাত্রলীগ-পুলিশ-প্রশাসনের ত্রিমুখী বর্বরতায় অনেকে ধিক্কার জানিয়েছেন; আবার অনেকে বলছেন তাঁরা ধিক্কার জানাবার ভাষাও হারিয়ে ফেলেছেন। মানুষ কেনো ভাষা পায় আর কেনোই বা কোনো-কোনো বিশেষ পরিস্থিতিতে তা হারায়, তার ত্বাত্ত্বিক আলোচনা হাজির করে কাউকে মূর্খ বা জ্ঞানী প্রতিপন্ন করার কোনো উদ্দেশ্য আমার নেই। তবে ভাষা যেহেতু ভাবের বাহন তথা ভাবাদর্শেরও বাহন, তাই নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে নির্দিষ্ট ভাষাটা খুঁজে পাওয়া জরুরী মনে করি। ...»

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ঃ জাগো বাহে, কোণ্‌ঠে সবায়!

মাসুদ রানা

আধুনিক বাঙালী জাতির গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস গড়েছেন এর বিদ্যার্থীরা। অখণ্ড বাংলায় ঊনিশ শতকের রেনেসাঁ বা নবজাগরণ থেকে শুরু করে বিভাগোত্তর পূর্ব-বাংলায় ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত বাঙালীর প্রায় সমস্ত ইতিহাস বিদ্যার্থীদের তৈরি। বাঙালী বিদ্যার্থীদের মতো এমন ইতিহাস-স্রষ্টা বিদ্যার্থীর পৃথিবীতে খুব কমই দেখা যায়। ...»

ব্লেয়ারের শিক্ষা-নিরাপত্তা তত্ত্ব ও আমার উদ্বেগ

মাসুদ রানা

গত শনিবারের অবজার্ভারে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার একটি আর্টিকেল লিখেছেন পৃথিবীতে আসন্ন যুদ্ধের চরিত্র কী হবে তার ভবিষ্যতবাণী করে। আর্টিকেলের শিরোনাম “রিলিজিয়াস ডিফারেন্সেস, নট আইডিওলজি, উইল ফিউয়েল দিস সেঞ্চুরিস এপিক ব্যাটেলস”।

ব্লেয়ার প্রথমে উপাত্ত দিয়ে প্রমাণ করতে চাইলেন সিরিয়া থেকে নাইজেরিয়া এবং ফিলিপাইন্স থেকে পাকিস্তান পর্যন্ত দেশে-দেশ চলছে ধর্মীয় চরমপন্থী সহিংসতা। তাঁর মতে, এ-সহিংসতা চলছে ধর্মের বিকৃতি ও ভ্রান্ত দৃষ্টিভঙ্গি ধারণ করে। ...»

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্যঃ মুক্তিযুদ্ধের অচেতনা

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রকৃত অর্থে সেক্যুলার ছিলো কি-না সে-বিষয়ে বিতর্ক রয়েছে। কারণ, মুক্তিযুদ্ধের অন্তে সংবিধানে এলেও, প্রস্তুতিতে ও চলন্তিতে সেক্যুলারিজম তো দূরের কথা, ধর্মনিরপেক্ষতার কথাও উচ্চারিত হয়নি।

যে ৬-দফা দাবীকে মুক্তির সনদ বিবেচনা করা হয়, সেখানে ধর্মনিরপেক্ষতা নেই; যে ১১-দফাকে প্রগতির পরাকাষ্ঠা মানা হয়, সেখানে নেই; যে স্বাধীনতার ইশতেহারকে মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা মনে করা হয়, সেখানেও নেই। ধর্মনিরপেক্ষতা তাহলে হঠাৎ করে সংবিধানে এলো কীভাবে? ...»

Syndicate content