• সুইডেনে বিদেশী শিক্ষার্থীদের বিনাখরচে উচ্চশিক্ষা বন্ধের সিদ্ধান্ত
    চিত্রা পাল

    সুইডেনের ইউনিভার্সিটি বা কলেজগুলোতে বিনা বেতনে উচ্চশিক্ষা গ্রহনের ব্যাপারটি ছিল সারা বিশ্বের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য একটা লোভনীয় এবং আকর্ষনীয় ব্যাপার, যা ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ হতে যাচ্ছে। নীতিগতভাবে সুইডেনের নিয়ম ছিল যে, এখানে যেকোন শিক্ষার্থী বিনা খরচে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে পারবে। ১১ সেপ্টেম্বর সুইডিশ সরকারের শিক্ষা ও গবেষনা মন্ত্রনালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, অ-ইউরোপীয়ানদের জন্য অবৈতনিক উচ্চশিক্ষা গ্রহনের সুযোগটি বন্ধ করে দেয়া হবে এবং শুধুমাত্র যাদের মোটা মানিব্যাগ অর্থাৎ বিশাল অংকের অর্থ খরচ করার সামর্থ্য থাকবে, শুধু তারাই সুইডেনের যেকোন ইউনিভার্সিটি বা কলেজে পড়াশুনা করতে পারবে। বিত্তহীন মেধাবী ছাত্রদের জন্য এরচেয়ে দুঃসংবাদ আর হতে পারেনা বলে সুইডেনে পড়ুয়া কয়েকজন বাংলাদেশী ছাত্র জানায়।

    সুইডেনের ইউনিভার্সিটি এবং কলেজগুলো বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য খুবই আকর্ষনীয়। যেকোন শিক্ষার্থী সুইডেনে পড়াশুনার জন্য নিজের চেষ্টা ও যোগ্যতা বলে সরাসরি ভর্তি হয়ে যেতে পারে এবং ভর্তি হয়ে গেলে ভিসার জন্যও কোন ধরনের সমস্যা হয় না। সুইডেনের এইসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে সেজন্য প্রতিবছরই বিদেশী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বাড়ছে। শুধুমাত্র গত বছরেই সুইডেনে বিদেশ থেকে আসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৯৩০০ জন, যার মধ্যে এশিয়ানদের ছিল সংখ্যায় বেশি; বিশেষ করে চীনারা। বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরই পছন্দের বিষয় হচ্ছে বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি। বাংলাদেশ থেকেও প্রতিবছর সুইডেনে আসছে বেশ কিছু শিক্ষার্থী।

    সুইডেনের শিক্ষা ও গবেষনা মন্ত্রী তোবিয়াস ক্রান্টস বলেন, অধিক সংখ্যক বিদেশী শিক্ষার্থীর বিনা খরচে পড়াশুনার জন্যে সুইডেনে আসার ফলে ইউনিভার্সিটিগুলোর উপর পড়ছে যে চাপ পড়ছে তা খুবই অসঙ্গত এবং অযৌক্তিক। সুইডেন বিশ্ব-প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ হতে চায় তার শিক্ষার গুনগত মান দিয়ে, বিনা খরচে পড়াশুনার সুযোগ দিয়ে নয়-বলে তিনি মন্তব্য করেন। ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ইইউ, ইইএস এবং সুইজারল্যান্ডের বাইরে থেকে যেসব শিক্ষার্থীরা সুইডেনের কোন ইউনিভার্সিটি বা কলেজে পড়াশুনা করতে আগ্রহী হবে, তাদের অবশ্যই পড়াশুনার সব ধরনের খরচ নিজেকে বহন করতে হবে। অর্থাৎ সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রতি শিক্ষার্থীকে বছরে ৭০,০০০ ক্রোনার ( ১ ক্রোনা = প্রায় ১০ টাকা) শুধু টিউশন ফি দিতে হবে। সে হিসেবে সুইডিশ সরকারের এ-খাতে বছরে আয় হবে প্রায় ৫০০ মিলিয়ন ক্রোনার। এছাড়াও প্রতি শিক্ষার্থীকে ভর্তি ফি বাবদ গুনতে হবে আরো কিছু অর্থ। কিছু-কিছু ডিগ্রী নিতে হয়ত এর চেয়েও বেশি খরচ পড়তে পারে বলে শিক্ষা মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা যায়।

    শিক্ষা ও গবেষনা মন্ত্রী তোবিয়াস ক্রান্টস সরকারী সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে বলেন, উন্নয়নশীল দেশগুলো থেকে বিশেষ বৃত্তি লাভের মাধ্যমে সুইডেনে বিনা খরচে পড়াশুনা করতে আসতে পারবে শিক্ষার্থীরা এবং সে স্কলারশীপগুলো দেয়া হবে সুইডেন থেকে বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশে প্রেরিত বাৎসরিক অনুদানের বাজেট প্যাকেট থেকে। তবে সে অনুদানের পরিমান কি হবে, তা তাৎক্ষনিক জানাতে তিনি জানান নি।

    চিত্রা পাল, সুইডেন থেকে
    ১৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯

     

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন