• অর্থনৈতিক পূর্বান্দাজিত প্রবৃদ্ধির হার হ্রাসঃ ভুক্তভোগীদের প্রতি গভর্নরের সহানুভূতি
    Sir-Marvyn-King.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৬ নভেম্বর ২০১১, বুধবারঃ  ব্রিটেইনের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার সম্পর্কে যে-পূর্বান্দাজ ছিলো, ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড তা আবারও হ্রাস করলো। দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা অনুজ্জ্বল ইঙ্গিত করে সঙ্কটে-ভোগা মানুষদের প্রতি সহানুভূতি জ্ঞাপন করেন ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের গভর্নর স্যার মার্ভিন কিং।

    ইউরো মুদ্রা-ভূক্ত দেশগুলোর সংগঠন ইউরোজৌনের সদস্য না হলেও, ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতির উপর পড়া ‘চাপ’কে দায়ী করা হচ্ছে ব্রিটিশ অর্থনীতির প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে অধোগতির জন্য।

    দেশে ৫% মূল্যস্ফীতির বিপরীতে আয়ের ব্যাপক ঘাটতির কারণে যে-দুর্ভোগ নেমে এসেছে, তার মধ্যে নিজেদেরকে ভাসিয়ে ও টিকিয়ে রাখার চেষ্টা-করা মানুষদের কথা উল্লেখ করে গভর্নর কিং বলেন, ‘এ-সঙ্কটে যে-মানুষেরা ভুক্তভোগী, তার জন্য তাঁরা দায়ী নন।’ তিনি বলেন, ‘তাঁদের প্রতি আমার প্রভূত সহানুভূতি।’

    কে বা কারা দায়ী এ-সঙ্কটের জন্য, তার নৈর্ব্যক্তিক ব্যাখ্যায় কিং বিশ্ব-বাণিজ্যে ভারসাম্যহীতা, টেকসই-নয় মাত্রার অভ্যন্তরীন ও বৈদেশিক ঋণগ্রস্ততা ও প্রতিযোগিতা হারানোকে সঙ্কটের অন্তর্নিহিত কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘ব্যাংক ও সার্বভৌম পর্যায়ের অর্থতহবিলগত যে-উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা দেখা যাচ্ছে, সেগুলো হচ্ছে এই অন্তর্নিহিত কারণগুলোর লক্ষণ।’
     
    ব্রিটেইনের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড গত কোয়ার্টার বা সিকি-বর্ষে যে-২৭৫ বিলিয়ন পাউন্ডের কোয়ান্টিটেটিভ ঈজিং (পাউন্ড কাগজে না ছেপে কম্পিউটারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে যোগ করে তা থেকে অর্থ-বাজার থেকে সম্পদ কিনে অর্থনীতি সচল রাখার কৃত্রিম পদ্ধতি) চালু করেছিলো, তার পরিমাণ নতুন বছরে কমপক্ষে ৫০ বিলিয়ন পর্যন্ত বর্ধিত করা হবে বলে ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন