• অর্ধ-স্বয়ংক্রিয় যুদ্ধ-ড্রৌন তৈরি করেছে ব্রিটেইন
    uk_taranis_drone.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, বুধবারঃ ব্রিটেইনের প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বিষয়ক কোম্পানী বিএই সিস্টেম্‌স আজ একটি নতুন ধরণের যুদ্ধ-ড্রৌন তৈরি সম্পন্ন করার কথা প্রকাশ করেছে। ট্যারানিস নামের এ-ড্রৌনটি নিজে-নিজে শত্রু চিহ্নিত করে বোমা বা গুলি ছুঁড়তে পারবে। তবে প্রচলিত ড্রৌনের মতো করে ভূমিতে অবস্থিত 'চালক'ও এটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।

    বিএই আজ ইউটিউবে একটি ভিডিওচিত্র প্রকাশের মাধ্যমে ট্যারানিসের প্রথম পরীক্ষামূলক উড্ডয়নের ছবি জনসমক্ষে উন্মুক্ত করে। এতে দেখা যায়, ৮-টন ওজন এবং ১১-মিটার দীর্ঘ ও ৯-মিটার প্রস্থের এ-বায়ুযানটি সচ্ছন্দে উড্ডয়ন, উড়াল ও অবতরণ করছে। বিএই জানিয়েছে, এটি নিজে-নিজে উড়ে আন্তঃমহাদেশীয় দূরত্ব অতিক্রম করতে সক্ষম।

    ট্যারানিসকে ব্রিটিশ প্রকৌশলীদের হাতে তৈরি এ-যাবতকালের সবচেয়ে অগ্রগামী বায়ুযান বলে বর্ণনা করা হয়েছে। এটি তৈরিতে এ-পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে ১৮৫ নিযুত (মিলিয়িন) পাউণ্ড। ব্রিটেইনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও কয়েকটি বেসরকারী কোম্পানী যৌথভাবে অর্থায়ন করেছে এ-প্রকল্পে।

    এদিকে যন্ত্রের হাতে মানুষ হত্যার সিদ্ধান্ত তুলে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ট্যারানিসের উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে। ট্যারানিস কার্যতঃ উড়নক্ষম একটি রোবোট। একে স্বয়ংক্রীয়ভাবে লক্ষ্যবস্তু নির্ধারণ ও তাতে আক্রমণ করতে দেয়া হলে তা সামরিক ও বেসামরিক মানুষের ফারাক করতে পারবে কি-না সেই বিতর্ক চলছে এখন ব্রিটেইন-সহ পশ্চিমা বিশ্বে।

    শান্তিতে নোবেলজয়ী জোডি উইলিয়াম্‌স মনে করেন, "খুনী রোবোটগুলো এমন অস্ত্র যার সামনে ড্রৌন একেবারে আদিম জিনিস।" রোবোটের হাতে মানুষ হত্যার সিদ্ধান্ত ক্ষমতা দেয়ার বিরুদ্ধে আইন তৈরি করতে তিনি আন্দোলন শুরু করেছেন। রোবোট ভুলক্রমে কারও প্রাণ কেড়ে নিলে তার আইনী দায় কে নিবে সে-সম্পর্কেও তিনি কর্তৃপক্ষসমূহের অবস্থান স্পষ্ট করার আহবান জানান।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন