• আওয়ামী লীগের জয় নিয়ে সন্দিহান ভারতঃ এরশাদের পর এবার আমন্ত্রণ খালেদাকে
    india_manmohan_khaleda_dhaka_2011.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৯ অক্টোবর ২০১২, রোববারঃ বাংলাদেশের প্রধান বিরোধীদল বিএনপি'র নেত্রী খালেদা জিয়া ভারত সরকারের আমন্ত্রণে এ-মুহূর্তে প্রতিবেশি দেশটি সফর করছেন। 'আগামি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়ের সম্ভবনা কম' - ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সম্প্রতি এমন সতর্ক-বার্তা জারি করলে দেশটির সরকার বাংলাদেশের বিরোধী রাজনৈতিক শক্তিগুলোর সাথে সম্পর্ক উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছে।

    টাইমস অফ ইণ্ডিয়া লিখেছে, 'আগামি বছর বাংলাদেশের (সাধারণ) নির্বাচনকে সামনে রেখে বিরোধী-নেত্রী খালেদা জিয়াকে সফরের আহবান জানিয়েছে ভারত'। বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার পঙ্কজ সরেন খালেদা জিয়ার সাথে ঢাকায় সাক্ষাত করে তাঁর সফর-সূচি আলোচনা করেন।

    আজ মিসেস জিয়া ভারতের লোকসভার বিরোধীদলীয় নেত্রী সুষমা স্বরাজের বাসভবনে তাঁর সাথে সাক্ষাত করেছেন। সফররত বিএনপি'র সহসভাপতি শমসের মবিন চৌধুরী সাংবাদিকদেরকে জানিয়েছেন, 'সুষমার কাছে সীমান্তে বাংলাদেশি নাগরিক হত্যার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে খালেদা'। তাদের বৈঠকে সীমান্ত-হত্যা ছাড়াও 'দু'দেশের সম্পর্ক উন্নয়ন, তিস্তা জল-বণ্টন , বাণিজ্য-ঘাটতি ইত্যাদি' বিষয়েও আলোচনা হয় বলে জানান তিনি।

    ৭ দিনের এ-সফরে খালেদা জিয়ার সাথে সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন ৯ সদস্যের একটি দল। তিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জি, প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, ক্ষমতাসীন কংগ্রেসে নেত্রী সোনিয়া গাঁধীর সাথে সাক্ষাত করার কথা রয়েছে।

    লক্ষ্যণীয়ঃ প্রায় একই সময় ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের পররাষ্ট্র-মন্ত্রী ডা. দীপু মণিরও ভারত সফর পূর্ব-নির্ধারিত থাকলেও শেষ মুহূর্তে তিনি তা বাতিল করেন। তিনি খালেদার এ-সফরকে 'গুরুত্বহীন' বলে মন্তব্য করেছেন। 'খালেদার সাথে একই সময়ে ভারতে অবস্থান এড়াতেই এ-সিদ্ধান্ত' এমন অভিযোগের উত্তরে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সূত্রগুলো মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকে বলে জানিয়েছে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

    উল্লেখ্যঃ গত অগাস্টে বাংলাদেশের পতিত স্বৈরাচার জেনারেল হু মু এরশাদ ভারত সফর করেন। তাঁর সফরের সংবাদ ভারতের প্রধান জাতীয় সংবাদপত্রগুলো গুরুত্ব দিয়ে প্রচার করে।

    খালেদা জিয়ার শেষ ভারত সফর ছিল ২০০৬ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, মিসেস জিয়ার এবের সফর বাংলাদেশের আগামী নির্বাচনের হিসেব-নিকেশে প্রভাব ফেলতে পারে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন