• আচরণ-বিধি লেভিসনের বিষয় নয়ঃ হান্ট শেষ পর্যন্ত স্বতন্ত্র তদন্তের সম্মুখিন হতে পারেন
    Jeremy-Hunt2.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৮ এপ্রিল ২০১২, শনিবারঃ  কালচার সেক্রেট্যারী জেরেমি হান্ট নিউজ কর্পোরেশনের কাছে বিস্কাইবি হস্তান্তর প্রক্রিয়ায় মন্ত্রীয় আচরণ-বিধি লঙ্ঘন করেছেন কি-না, তা লেভিসন এনকোয়ারীর দেখার বিষয় নয় বলে লর্ড জাস্টিস লেভিসন বাতিল করে দেবার পর, লেবার পার্টি অব্যাহত চাপের মুখে, প্রধানমন্ত্রী শেষ পর্যন্ত হান্টকে স্বতন্ত্র তদন্ত কমিশনের সম্মুখিন হবার নির্দেশ দিতে পারেন বলে জানিয়েছে ১০ নং ডাউনিং স্ট্রীট। তবে চলমান লেভিসন এনকোয়ারীতে হান্টের দেয় সাক্ষ্য সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে স্বতন্ত্র তদন্তের সম্মুখিন করা অযৌক্তিক বলে দাবী করছে সরকার। আর, বিপরীতে লেবার পার্টি বলেছে প্রধানমন্ত্রীর উচিত হচ্ছে মন্ত্রীয় আচরণ-বিধি তাঁর স্বতন্ত্র উপদেষ্টা স্যার এ্যালেক্স এ্যালানের কাছে হান্টকে ‘রেফার’ করা।

    বিস্কাইবি (ব্রিটিশ স্কাই ব্রডকাস্টিং) রুপার্ট মার্ডকের মালিকানাধীণ নিউজ কর্পোরেশনের কাছে বিক্রি করার ঘটনাটি তদন্তের আলোতে আসার সূত্রে মার্ডক যে-সাক্ষ্য দিয়েছেন, তাতে বিক্রির দায়িত্বে থাকা কালচার সেক্রেট্যারী জেরিমি হান্ট জড়িয়ে পড়েছেন এক কেলেঙ্কারিতে। ইতোমধ্যে হান্টের বিশেষ উপদেষ্টা এ্যাডাম স্মিথ পদত্যাগ করার পর হান্ট বিস্কাইবি বিষয়ে তাঁর ই-মেইল ও টেক্সটবার্তা-সহ সমস্ত আদান-প্রদান লেভিসন এনকোয়ারীর কাছে প্রকাশ করবেন বলে ঘোষণা দিতে বাধ্য হয়েছেন।

    বিরোধী দল লেবার পার্টি দলগতভাবে এবং সরকারের শরীক দল লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ডেপুটি লীডার ও একজন গুরুত্বপূর্ণ এমপি দাবী করছেন, হান্টকে স্বতন্ত্র তদন্তের সম্মুখিন করা হোক। এমনকি, কনসার্ভেটিভ পার্টিও কোনো-কোনো এমপি এ-দাবী সমর্থন করছেন।

    প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোন তাঁর কালচার সেক্রেট্যারী হান্টের উপর বারংবার ‘পূর্ণ আস্থা’ প্রকাশ করে বলেছেন, লর্ড জাস্টিস লেভিসনের নেতৃত্বাধীন লেভিসন একোয়ারীতে সাক্ষ্য দেবার মধ্য দিয়ে পরিষ্কার হয়ে যাবে যে হান্ট তাঁর মন্ত্রীয় আচরণ-বিধি লঙ্ঘন করেছেন কি-না।

    ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী ও লিবডেম-নেতা নিক ক্লেগ লেভিসন ঘটনাটির দ্রুত নিষ্পত্তি জন্য এনকোয়ারীর কাছে জেরেমি হান্টের সাক্ষ্যদানের তারিখ এগিয়ে নিয়ে আসা হবে বলে যে দাবী করেছিলেন, এনকোয়ারীর পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে। পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হান্ট তাঁর সাক্ষ্য মে মাসের মাঝামাঝিতেই দেবেন বলে নিশ্চিত করেছে লেভিসন এনকোয়ারী।

    উপরন্তু, মন্ত্রীয় আচরণ-বিধি লঙ্ঘন হয়েছে কি-না, তা তাদের তদন্তের বিষয় নয় বলে লেভিসন এনকোয়ারীর স্পষ্ট ঘোষণা আসার পর প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরোন বিপাকে পড়েছেন। অনেকটা সহজতর লেভিসন এনকোয়ারীর কাছে তড়িৎ সাক্ষ্য দেওয়ানোর মধ্য দিয়ে হান্টকে ‘পরিষ্কার’ করে নিয়ে আসার পথ কঠিন হয়ে যাবার পর, কঠোরতর স্বতন্ত্র তদন্তের সম্মুখিন হওয়াটা দৃশ্যতঃ অনিবার্য হয়ে উঠেছে।

    তবে, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে দেয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘জেরেমি হান্টের সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হবার পর, যদি তখন এমন কিছু থাকে যাতে বুঝা যায় যে তিনি আচরণ-বিধি লঙ্ঘন করে থাকতে পারেন, তখন প্রধানমন্ত্রী অবশ্যই পদক্ষেপ নিবেন।’

    বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘জেরেমি হান্ট যে শপথের অধীনে এনকোয়ারীর সম্মুখিন হবেন, এ-বিষয়টিই এ-কথা স্পষ্ট করে দেয় যে তিনি তদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত সাক্ষ্যই হাজির করবেন। এই আইনগত তদন্তের মাঝে আরেকটি সমান্তরাল প্রক্রিয়া শুরু করার কোনো মানে হয় না।’
     
    এদিকে লেবার পার্টির নেতা এড মিলিব্যাণ্ড কালচার সেক্রেট্যারী হিসেবে জেরেমি হান্টকে দেখতে চান না বুঝাতে গিয়ে স্পষ্ট করে বলেছেন, ‘আমি মনে করি জেরেমি হান্টের যাওয়া উচিত, আমি মনে করি প্রধানমন্ত্রীর উচিত ছিলো তাঁকে রখাস্ত করা। কিন্তু নুন্যতম যা হতেই হবে, তা হচ্ছে তাঁর এ্যালেক্স এ্যালানের সম্মুখিন হওয়া।’

    বিরোধী নেতা মিলিব্যাণ্ড প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরোনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে বলেছেন যে, এখনও পর্যন্ত মন্ত্রীয় আচরণ-বিধি বিষয়ক প্রধানমন্ত্রীর স্বতন্ত্র উপদেষ্টা এ্যালেক্স এ্যালানকে হান্ট প্রসঙ্গ থেকে ইচ্ছাকৃতভাবে দূরে রাখা হয়েছে। তিনি ক্যামেরোনের বিরুদ্ধে হান্টের কেলেঙ্কারি ‘কাভার-আপ’ বা ‘ঢাকা-দেওয়া’ অভিযোগ করেছেন।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন