• আজ থেকে লণ্ডন বাসে নগদ টাকায় ভাড়া নেয়া বন্ধ
    uk_london_bus_goes_cashless.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৬ জুলাই ২০১৪, রোববারঃ লণ্ডনের বিখ্যাত বাস নেটওয়ার্কে আজ রোববার থেকে নগদ টাকায় ভাড়া নেয়া বন্ধ হলো। এখন থেকে কেবলমাত্র ওয়েস্টার কার্ড, ট্র্যাভেল কার্ড বা কণ্ট্যাক্টলেস ব্যাঙ্ক কার্ডের মাধ্যমে বাসের ভাড়া পরিশোধ করা যাবে। ব্রিটেইনের রাজধানীর গণপরিবহণ কর্তৃপক্ষের পূর্ব-ঘোষিত পরিকল্পনা অনুযায়ী এ-নিয়ম কার্যকর হচ্ছে।

    লণ্ডনের গণপরিবহনে ভাড়া পরিশোধের জন্য নগদ টাকার পাশাপাশি ওয়েস্টার কার্ডের মাধ্যমে ডিজিট্যাল পদ্ধতি চালু হয় ২০০৩ সালে। এ-পদ্ধতিতে দৈনিক ও বিভিন্ন মেয়াদী ট্র্যাভেলকার্ডের ভেতর ডিজিট্যাল পদ্ধতিতে চাহিদা মাফিক অর্থমূল্য ঢুকিয়ে রাখা যায়। ২০১২ সালের জুনে মাসে প্রকাশিত গণপরিবহন কর্তৃপক্ষ ট্র্যান্সপৌর্ট ফর লণ্ডন বা টিএফএল জানিয়েছিলো, লণ্ডনের গণপরিবহনের আশি শতাংশ ভ্রমণের জন্য ওয়েস্টার কার্ড ব্যবহৃত হয়।

    নগদে ভাড়া নেয়া বন্ধ করার পক্ষে যুক্তি দিয়ে টিএফএল দাবি করেছে, নগদ টাকা গ্রহণ, গণনা ও ব্যাঙ্কে জমা দেয়া বন্ধ করতে পারলে বছরে তাদের ২৪ মিলিয়ন পাউণ্ড বাঁচবে। প্রতিষ্ঠানটির একজন মুখপাত্র মার্ক ওয়াট্‌সন আইটিভিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, "এ-অর্থ বাসের পরিষেবা উন্নয়নে পুনঃবিনিয়োগ করা হবে।"

    তবে নতুন নগদবিহীন ভাড়া পদ্ধতির কারণে অনেক যাত্রী অসুবিধায় পড়তে পারেন বলে এ-নিয়মের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক সমালোচক। গ্রীণ পার্টির লণ্ডন এ্যাসেম্বলির সদস্য ড্যারেন জন্‌সন বলেছেন, যাদের ওয়েস্টার কার্ড হারিয়ে বা নষ্ট হয়ে গিয়েছে তারা কি বাসে চড়তে পারবেন কি-না সে-প্রশ্ন অমীমাংসিত রয়ে গিয়েছে। গত বছরের হিসাব অনুযায়ী প্রতিদিন গড়ে ২,১০০ ওয়েস্টার কার্ড হারিয়ে, নষ্ট হয়ে বা চুরি হয়ে যায় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

    উল্লেখ্য, টিএফএলের অধীনে লণ্ডনের রাজপথে প্রায় ২৪,৫০০ বাস চলে, যা কার্যতঃ কয়েকটি ভিন্ন-ভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দ্বারা পরিচালিত হয়। তবে সকল বাস একই লাল রঙের হওয়ার লণ্ডনকে অনেকে লাল বাসের শহরও বলে থাকেন।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন