• আনন্দাশ্রু পুনঃনির্বাচিত ওবামার চোখেঃ এ-মাসেই যাবেন চীনের প্রতিবেশি বার্মা সফরে
    us_obama_crying.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৯ নভেম্বর ২০১২, শুক্রবারঃ গত মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান মিট রমনিকে পরাজিত করে পুনরায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন ডেমৌক্র্যাট প্রার্থী বারাক ওবামা। বুধবার ফল প্রকাশের পর বৃহস্পতিবার শিকাগৌতে তাঁর নির্বাচনী প্রচারাভিযান-কর্মীদের উদ্দেশ্যে ধন্যবাদ-সূচক ভাষণদান-কালে আবেগাপ্লুত ওবামার চোখ থেকে অশ্রু গড়িয়ে পড়তে দেখা যায়।

    প্রচার-কর্মীদেরকে নিয়ে তিনি 'ভীষণ গর্বিত' ঘোষণা করে অশ্রুসিক্ত ওবামা চোখ মুছতে মুছতে বক্তৃতা শেষ করে। কর্মীরা সে-সময় করতালিতে হলঘরটি ভরে তোলে। গত মার্চে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভ্লাদিমির পুতিনও বিজয়ী হবার পর অশ্রু-সিক্ত নয়নে কৃতজ্ঞতা জানান দেশবাসীকে। এ-মুহূর্তে বিশ্ব-অর্থনীতিতে আরেক গুরুত্বপূর্ণ শক্তি চীনেও চলছে নেতৃত্ব পরিবর্তন। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির চলমান অষ্টাদশ কংগ্রেসে দায়ীত্ব থেকে অব্যাহতি নিবেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট হু জিন্তাও।

    এদিকে, হোয়াইট হাউসে পুনঃপ্রবেশ করেই এ-মাসের মধ্যেই বার্মা সফরের ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। গত পঞ্চাশ বছরে এটিই হবে কোন মার্কিন প্রেসিডেন্টের বার্মা ভ্রমণ। সরকারী সূত্র জানিয়েছে, ওবামা বার্মার সংস্কারবাদী প্রেসিডেণ্ট থেইন সিন ও বিরোধী নেত্রী সু কিয়ীর সাথে সাক্ষাত করবেন। একই সফর অভিযানে ওবামা থাইল্যাণ্ড ও কম্বোডিয়াতেও যাবেন।

    ওবামার বিদেশনীতির কেন্দ্রীয় কৌশলগত গুরুত্ব মধ্যপ্রাচ্য থেকে সরিয়ে এসিয়ায় আনার নীতিকে চীনের জন্য হুমকিস্বরূপ বলে মনে করা হয়। প্রশান্ত মহাসাগরের অবস্থিত মার্কিন সামরিক ইউনিট 'প্যাসিফিক কমাণ্ড (প্যাকম)'-এর আকার, ঘাঁটি ও শক্তি বৃদ্ধিকে চীনের অর্থনৈতিক ও সামরিক উত্থানের বিরুদ্ধে মার্কিন পাল্টা-ব্যবস্থা বলে ধারণা করা হয়। এ-কারণে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার দু'সপ্তাহের মধ্যে চীনের ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশি বার্মা, থাইল্যাণ্ড ও কম্বোডিয়ায় ওবামার সফর চীন এবং সংলগ্ন পূর্ব ও দক্ষিণ এসিয়ার দেশগুলোর জন্য কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন