• আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ভারতেরঃ পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ পশ্চিমের বিরুদ্ধে
    india_agni5_mobile_launcher.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৯ এপ্রিল ২০১২, বৃহস্পতিবারঃ  আজ ভোরে ৫হাজার কিলোমিটার (৩,১০০ মাইল) দূরের লক্ষ্যবস্তুতে নির্ভুলভাবে আঘাত হানতে সক্ষম পারমাণবিক বোমা বহনে উপযুক্ত একটি দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে ভারত। ইউকেবেঙ্গলি গত ফেব্রুয়ারীতে অগ্নি-৫ নামের এ-ক্ষেপণাস্ত্রের সম্ভাব্য উৎক্ষেপণের আগাম খবর পরিবেশন করেছিলো।

    ভারতের নিজ-তত্ত্বাবধানে প্রস্তুত প্রথম এ-আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রটি উৎক্ষেপণ করা হয়েছে ওড়িশার রাজ্যের উপকূলবর্তী হুইলার দ্বীপ থেকে। দৈর্ঘ্যে সাড়ে ১৭ মিটার  ওজনে ৫০ মেট্রিক টনের  এ-ক্ষেপণাস্ত্রটি দেড়টন ওজনের পারমাণবিক বোমা বহনে সক্ষম। ভারত জানিয়েছে, অগ্নি-৫ নির্মাণে প্রায় আড়াইশো কোটি রুপী খরচ হয়েছে। উল্লেখ্যঃ গত এক দশকে ভারতের সামরিক ব্যয় বেড়েছে ৬৬%।

    অগ্নি-৫ এর সফল পরীক্ষায় মধ্য দিয়ে ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় এলো প্রতিবেশী চীনের বেইজিং ও সাংহাই-সহ গুরুত্বপূর্ণ সকল শহর। কেবল চীনই নয়, জাপান, রাশিয়া, ইরান, ইসরায়েল, ফিলিপাইন, ইন্দোনেসিয়া, থাইল্যাণ্ড-সহ প্রায় সমগ্র এসিয়া, ইউরোপের ৭০ শতাংশ, আফ্রিকার অনেকাংশে আঘাত হানতে সক্ষম ভারত।

    ইউকেবেঙ্গলি লক্ষ্য করে, গত সপ্তাহে উত্তর কোরিয়ার বেসামরিক উপগ্রহ উৎক্ষেপণ-প্রচেষ্টাকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বলে তীব্র সমালোচনা ও নিন্দায় মেতে ওঠা পশ্চিমা-বিশ্ব দৃশ্যতঃ অনুমোদন করেছে ভারতের পারমাণবিক বোমা বহনক্ষম আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা।

    যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশ-মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র মার্ক টোনার ভারতের প্রশংসা করে বলেন, 'অস্ত্র-বিস্তার রোধে ভারতের শক্ত ইতিহাস রয়েছে'। দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র টনি ভিয়েটর বলেন, 'আমরা জানি ভারত অগ্নি-৫ আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। পরমাণু-শক্তিধর সকল দেশকে আমরা সংযম প্রদর্শন করতে অনুরোধ করছি'।

    ন্যাটোর মহাসচিব আন্দ্রেঁ ফগ রাসমুশেন বলেছেন যে, ন্যাটো ভারতকে ক্ষেপণাস্ত্র-হুমকি বলে মনে করছে না।

    আনুষ্ঠানিকভাবে চীন ভারতের এ-ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণকে 'হুমকি নয়' বলে চিহ্নিত করে স্বাগত জানালেও দেশটির সংবাদ-মাধ্যমগুলো নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। বিদেশ-মন্ত্রণালয়ের লিউ ওয়েইমিন নামের একজন মুখপাত্র বলেছেন, 'চীন ও ভারত একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী নয় বরং অংশীদার'।
     
    অস্ত্র-বিস্তারে ভারতের চির-প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিবেশী পাকিস্তান এখনও কোনো আনষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন