• ইউরোপীয় ঋণ সঙ্কটঃ গ্রীসের পর এবার স্পেইনের বেইলআউট চাওয়ার আশঙ্কা
    spain_6pc_yield.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৬ এপ্রিল ২০১২, সোমবারঃ  গ্রীসের পর এবার স্পেইনকে কেন্দ্র করে ঘনীভূত হয়ে উঠছে ইউরোপের অর্থনৈতিক মন্দা। ২০০৯ সালের পর স্পেইনের অর্থনীতি আবারও মন্দায় - অর্থাৎ রিসেশনে - পতিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির অর্থনীতি মন্ত্রী লুই দ্য গুইন্দোস।

    স্পেইনের ১০ বছর মেয়াদী সার্বভৌম-ঋণের বিপরীতে সুদের হার ৬ শতাংশ অতিক্রম করার পর গতকাল গুইন্দোস এ-মন্তব্য করেন। অবশ্য তিনি গ্রীসের মতো কোনো ধরনের বেইলআউটের সম্ভবনা নাকচ করে দেন। তাঁর মতে, 'উদ্ধার পেতে স্পেইন কারও কাছে ধর্ণা দিতে যাচ্ছে না। কোনো বিদেশী হস্তক্ষেপ ঘটবে না' । এ-বছরের বাজেটে নতুন কোন কৃচ্ছতা কর্মসূচি নেয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

    কিন্তু গুইন্দোসের সাথে পুরোপুরি একমত নন ইউরোপীয় অর্থনীতিতে বিশেষজ্ঞরা। নেদারল্যাণ্ডস-ভিত্তিক রাবোব্যাঙ্কের কৌশল-নির্ধারক লিন গ্রাহাম-টেইলর মনে করেন যে, স্পেইন এখন পূরোদস্তুর সঙ্কট-পরিস্থিতিতে রয়েছে। স্পেইনকে কোনো না কোনো ধরনের বেইলআউট নিতে হবে বলে মন্তব্য করেন গ্রাহাম-টেইলর।

    সার্বভৌম-ঋণের সুদ বাড়ার - অর্থাৎ সরকার কর্তৃক অর্থ ধার করার খরচ বাড়ার - পাশাপাশি বেড়েছে সে ঋণ ইন্স্যুরেন্স করার খরচও। ১০ নিযুত (মিলিয়ন) ডলার ঋণের বণ্ডের ইন্স্যুরেন্স করতে খরচ হচ্ছে বছরে ৫ লাখ ২২ হাজার ডলার, যা দেশটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ। ফলে স্পেইনের বণ্ড কিনতে আগ্রহ হারাচ্ছে লগ্নিকারীরা, যার অবশ্যাম্ভবী প্রতিক্রিয়ায় সরকারকে আরও বেশি সুদ প্রস্তাব করতে হবে।

    উল্লেখ্য, পৃথিবীব্যাপী সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অর্থনৈতিক নিম্ন-গতির কারণে সার্বভৌম-ঋণের বিপরীতে ৬% সুদের হার একটি মানসিক সীমা বলে ধরা হচ্ছে। এ-পরিস্থিতে বাজারের আত্মবিশ্বাস ভেঙ্গে পড়ে ফলে বণ্ড ক্রেতার ক্রম-বর্ধমান অভাবে সুদের হার আরও বাড়াতে হয়। গ্রীসের ক্ষেত্রেও এ-৬% সীমা অতিক্রম করার পর তা দ্রুত ৭% ছুঁয়েছিল, পরে যে অবস্থা থেকে দেশটিকে বেইলআউট করতে হয়েছিলো।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন