• ইরানের জাহাজ সৌদি বন্দরেঃ উদ্দেশ্য ‘সমূদ্রে শক্তি প্রদর্শন ও ইরান-ভীতি দূরীকরণ’
    Iranian-ships-dock-at-Jeddah.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১২, রোববারঃ  ইরানের ‘খার্গ’ নামের একটি সরবরাহকারী জাহাজ এবং তার সাথে ‘শাইদ কান্দি’ নামের একটি ডেস্ট্রয়ার গতকাল শনিবার লোহিত সাগরের সৌদি বন্দর জেদ্দাতে নোঙ্গর ফেলেছে, যা তাদের নৌশক্তির প্রদর্শন ও ইরান সম্পর্কে ইতিবাচক ভাবমূর্তি গড়ে তোলার উদ্দেশ্য করা হয়েছে বলে ইরানী নৌসেনা কর্তৃপক্ষ দাবী করেছে।

    ইরানের নৌবাহিনীর কমাণ্ডার এ্যাডমিরাল হাবিবুল্লাহ সায়ারিকে উদ্ধৃত করে ফরাসী বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, দেশটির শীর্ষ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির নির্দেশ অনুসারেই এই জাহাজ দুটো নোঙ্গর করেছে সুন্নি রাজতান্ত্রিক দেশ সৌদি আরবে।

    এ্যাডমিরাল সায়ারি বলেন, ‘এই মিশনের উদ্দেশ্য হলো ইসলামিক জনতন্ত্রটির খোলা সমূদ্রে শক্তি প্রদর্শন এবং ইরান-ভীতি মোকাবেলা করা’। মিশনটি বেশ কয়েকদিন আগে শুরু হয়েছে এবং আগামী ৭০ থেকে ৮০ দিন পর্যন্ত চলবে বলে কমাণ্ডার সায়ারিকে উদ্ধৃত করে নিশ্চিত করেছে এএফপি। তবে মিশনটির পরবর্তী গন্তব্য কোথায় তা প্রকাশ করা হয়নি।

    উল্লেখ্য, ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন ইরান থেকে তেল আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রেক্ষিতে দেশটি হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দিয়ে পারস্য উপসাগর থেকে তেল চলাচল থামিয়ে দেবে বলে প্রতিক্রিয়া জানালে, সৌদি আরব তার তেল উৎপাদন বাড়িয়ে দিয়ে ঘাটতি পূরণ করবে বলে ঘোষাণা দেয়। পরবর্তীতে ইরানের পক্ষ থেকে সৌদি আরবের এ-কথাকে ‘অ-বন্ধুসুলভ’ বলে আখ্যায়িত করে কথা প্রত্যাহার করার দাবী জানিয়েছিলেন।

    ইরানী জাহাজের জেদ্দায় নোঙ্গরের ঘটনায় সৌদি আরব বা তার পশ্চাত্য-মিত্রদের প্রতিক্রিয়া কী, তা এখনো জানা যায়নি।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন