• ইসলামী খিলাফতের ঘোষণা আইসিসিসেরঃ স্বাধীন কুর্দীস্তানে সমর্থন ইসরায়েলের
    iraq_syria_isis_islamic_state_map.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৯ জুন ২০১৪, রোববারঃ  আজ ইরাক ও সিরিয়ার দখলকৃত এলাকায় 'ইসলামী খিলাফত' প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে সুন্নী জিহাদী দল ইসলামি স্টেইট অফ ইরাক এ্যাণ্ড লেভাণ্ট - আইসিল, যা আইসিস নামে সমধিক পরিচিত। এ-রাষ্ট্রের রাষ্ট্র-প্রধান বা খলিফা হিসেবে দলটির নেতা আবু বকর আল-বাগদাদীর নাম জানানো হয়েছে ইণ্টারনেটে প্রকাশিত ঘোষণায়। রয়টার্স, দ্য ইণ্ডিপেণ্ডেণ্ট ও রাশিয়া টুডে জানিয়েছে সংবাদ।

    প্রায় ৯০ বছর পূর্বে তুর্কী সাম্রাজ্যের সাথে ভেঙ্গে যাওয়া ইসলামী খিলাফত পুনঃপ্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেওয়া হলো মুসলিমদের কাছে পবিত্র বলে বিবেচিত রমজান মাসের প্রথম দিনে। কয়েকটি জিহাদী ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ও ট্যুইটারে প্রচারিত ঘোষণায় 'নতুন খলিফাকে' সকল মুসলমানের নেতা বলে দাবি করেন আইসিসের মুখপাত্র আবু মুহম্মদ আল-আদনানি।

    দাবিকৃত 'ইসলামী খিলাফত' ইরাকের দিয়ালায়া অঞ্চল থেকে সিরিয়ার আলেপ্পো পর্যন্ত বিস্তৃত। এর পূর্বে রয়েছে ইরাকের স্বায়ত্বশাসিত কুর্দী প্রদেশ, পশ্চিমে সিরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকা, উত্তরে তুরষ্ক ও সিরিয়ার কুর্দী এলাকা এবং দক্ষিণে ইরাকের বাকি অংশ, যা প্রধানতঃ শিয়া অধ্যুষিত। শিয়া সরকারের বিরুদ্ধে সুন্নী জিহাদীদের যুদ্ধের হাঙ্গামার মধ্যে ইরাকের কুর্দীরা তেল-সমৃদ্ধ কির্কুক শহরের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে এ-মাসের মাঝামাঝি। এরপর থেকে কুর্দী সরকার বাগদাদকে পাশ কাটিয়ে স্বাধীনভাবে বিদেশে তেল রপ্তানি করতে শুরু করেছে।

    সাম্প্রতিক ঘটনাবলির মধ্য দিয়ে কুর্দী জাতির দীর্ঘদিন ধরে লালিত স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বপ্ন সত্যি হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। আজ ইসরায়েলী প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু সমর্থন করেছেন স্বাধীন কুর্দী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার। তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইএনএসএস-এ দেয়া এক বক্তৃতায় তিনি বলেন, "[কুর্দীরা] যোদ্ধার জাতি এবং তারা তাদের রাজনৈতিক অঙ্গীকার প্রমাণ করেছে, [সুতরাং] স্বাধীন রাষ্ট্র তাদের প্রাপ্য।" কয়েকদিন আগে কুর্দী অঞ্চলের প্রেসিডেণ্ট মাসুদ বার্জানি সিএনএনকে বলেছিলেন, "কুর্দী জাতির লোকদের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করার সময় এসেছে।"

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন