• 'ইসলাম-অবমাননাকর' ছায়াছবি প্রকাশের জেরঃ লিবিয়ায় হামলায় মার্কিন দূত নিহত
    libya_egypt_protest_us_ambassador_killed.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১২ সেপ্টেম্বর ২০১২, বুধবারঃ লিবিয়ার নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফীকে ক্ষমতাচ্যুত ও হত্যা করতে যাদের হাতে যুদ্ধাস্ত্র তুলে দিয়েছিলো যুক্তরাষ্ট্র, সেই ইসলামবাদী মিলিশিয়াদের হাতে গতরাতে প্রাণ হারিয়েছেন লিবিয়ার নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

    গতরাতে একদল সশস্ত্র ইসলামবাদী মিলিশিয়া বেনগাজিতে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে হামলা চালায়। হামলার এক পর্যায়ে সমগ্র দূতাবাস ভবনটিতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। সে-সময় মিলিশিয়াদের নিক্ষিপ্ত রকেটের আঘাতে রাষ্ট্রদূত ক্রিস স্টিভেন্‌স ও তিনজন দূতাবাস-কর্মী প্রাণ হারান। তবে অসমর্থিত একটি সূত্র জানিয়েছে নিহতের সংখ্যা অন্ততঃ ১৩।

    যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এ-হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছেন। ব্রিটিশ পররাষ্ট্র-মন্ত্রী উইলিয়াম হেইগও এ-ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন।

    দৃশ্যতঃ 'ইনোসেন্স অফ মুসলিমস' নামক একটি ছায়াছবি - যেটিকে মুসলমান সম্প্রদায়ের অনেকে 'ইসলাম-অবমাননাকর' বলে অভিহিত করেছেন - তার প্রচারকে কেন্দ্র করে গতকাল মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। মিশরে বিক্ষুব্ধরা যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসে হামলা চালায় - অনেকে দেয়াল টপকে ভিতরেও ঢুকে পড়ে।

    স্যাম ব্যাসিল নামক যুক্তরাষ্ট্রের একজন নাগরিক যিনি নিজেকে 'ইসরায়েলী ইহুদি' বলে পরিচয় দেন, ৫০ লাখ ডলার খরচ করে এ-ছায়াছবিটি তৈরি করেছেন। বার্তা সংস্থা এ্যাসৌসিয়েটেড প্রেসের কাছে তিনি দাবী করেন যে, অন্ততঃ ১০০ জন ইহুদি দাতা এ-প্রকল্পে অর্থিক অনুদান দিয়েছেন। ২-ঘন্টার এ-চলচ্চিত্রটি হলিউডের একটি পেক্ষাগৃহে মাত্র একবারই দেখানো হয়েছে, তবে ইউটিউব ওয়েবসাইটে এর ১৩ মিনিটের একটি খণ্ডাংশ সংরক্ষিত রয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন