• উত্তেজনা বাড়ছে মধ্যপ্রাচ্যেঃ লেবানন-ইসরায়েলের গোলা বিনিময়, ইরানের হুমকি
    israel_lebanon_rocket_exchange_28nov11.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৯ নভেম্বর ২০১১, মঙ্গলবারঃ মধ্যপ্রাচ্যে অব্যাহত সামরিক উত্তেজনার মাঝে লেবানন ও ইসরায়েল রকেট ও ভারী গোলা বিনিময় করেছে গতরাতে। বার্তাসংস্থা এপি জনিয়েছে দক্ষিণ-লেবানন থেকে অন্ততঃ ৩টি রকেট ছোঁড়া হয়েছে উত্তর ইসরায়েলে। জবাবে ইসরায়েলও ভারী গোলা নিক্ষেপ করেছে লেবাননের অভ্যন্তরে। হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

    ২০০৯ সালের পর এই প্রথম লেবানন থেকে কোন রকেট ইসরালে ছোঁড়া হলো। তবে লেবানন সরকার রকেট হামলার দায়ীত্ব অস্বীকার করেছে। দক্ষিণ লেবাননে অবস্থানকারী জাতিসঙ্ঘের শান্তিরক্ষী-বাহিনী অতিরিক্ত সৈন্য মোতায়েন করে প্রহরা বৃদ্ধি করেছে। শান্তিরক্ষী কমাণ্ডার মেজর জেনারেল আলবার্তো আসার্তা এক বিবৃতিতে বলেছেল, 'সকল পক্ষকে ধৈর্য ধরতে হবে'। তিনি আরও জানিয়েছেন লেবানন ও ইসরায়েলের সংশ্লিষ্ট সরকারী মহলের সাথে তিনি 'ঘনিষ্ট যোগাযোগ' রক্ষা করছেন।

    তৎক্ষণাত অনেকেই ধারণা করেছিলেন যে হিজবুল্লাহ্‌ এ-ঘটনায় জড়িত থাকতে পারে। তবে হিজবুল্লাহ ও ইসরায়েল উভয়েই তা নাকচ করে দিয়েছে। লেবানন সরকারকে দায়ী করে ইসরায়েল বলেছে, 'লেবাননের সীমার ভিতর থেকে যা-কিছু নিক্ষিপ্ত হয় তার দায়ীত্ব লেবানন সরকারের'। লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল সোলাইমান এ-ঘটনার নিন্দা করে বলেছেল, 'যে-ই করে থাকুক এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা'।

    এদিকে ইসরায়েলের সাম্প্রতিক পারমানবিক-বোমা বহনে সক্ষম জেরিকো-৩ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রত্যুত্তরে দেড়লাখ ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার হুমকি দিয়েছে ইরান। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমেদ ভাহিদি গত রোববার ইসরায়েলকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, 'ইরানে হামলা করলে ইসরায়েলকে উত্তম শিক্ষা দেয়া হবে'। তিনি আরও বলেন, 'ইরানকে আক্রমণ করলে ইসরায়েলের টিকে থাকার সম্ভবনা খুবই ক্ষীণ, কারণ ইরান হাজার হাজার ক্ষেপনাস্ত্র নিয়ে সমগ্র ইসরায়েলে পাল্‌টা হামলা চালাবে'।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন