• গাদ্দাফিকে ‘ক্ষমতা’য় রেখেই যুদ্ধবিরতি রাজনৈতিক সমাধান চান আরব লীগের প্রধান
    Amr-Moussa.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি, ২২ জুন ২০১১, বুধবারঃ  ন্যাটোর উদ্দেশ্য অর্জনে ব্যর্থ আকাশিক বোমা হামলার ব্যাপারে শংসয় প্রকাশ করে যুদ্ধবিরতি ও লিবিয়ার রাজনৈতিক ফয়সালার উদ্দেশ্য গাদ্দাফিকে ‘ক্ষমতা’য় রেখেই আলোচনার আহবান করলেন আরব লীগের বিদায়ী প্রধান ও সম্ভাব্য মিশরের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী আমর মুসা।

    ব্রিটেইন ও ফ্রান্সের নেতৃত্বে লিবিয়া আক্রমণে যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশের সম্মতির পিছনে যে আরব লীগের সুপারিশের কথা উল্লেখ করে আক্রমণের যৌক্তিকতা দাবী করা হয়, সে আরব লীগের প্রধান আমর মুসা এখন তার দ্বিতীয় চিন্তা তুলে ধরেছেন ন্যাটোর আকাশিক বোমা হামলা অকার্যকর প্রমানিত হবার পর।

    তিনি বলেন, ‘যখনই আমি দেখি শিশুদের হত্যা করা হচ্ছে, তখন আমি শঙ্কিত না হয়ে পারি না। এ-কারণেই আমি বেসামরিক প্রাণনাশের ঝুঁকির ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছিলাম’।

    উল্লেখ্য, এ-সপ্তাহে ন্যাটো স্বীকার করেছে যে, লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলিতে তাদের নিক্ষিপ্ত ক্ষেপণাস্ত্রে শিশু -সহ ৯ বেসামরিক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। অবশ্য, মৃতের সংখ্যা ১৫ বলে দাবী করেছে লিবিয়া সরকার। ন্যাটোর পক্ষ থেকে এটি ভুল হয়েছে বলে স্বীকার করা হয়েছে।

    মঙ্গলবারে দৈনিক গার্ডিয়ান ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানায়, লিবিয়া আক্রমণের কারণে আরব-বিশ্ব আবার পাশ্চাত্যের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। লিবিয়ার ব্যাপারে আপোস-আলোচনায় জড়িত ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের এক কর্মকর্তা গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘আরব লীগ আমাদের বলছে যে আমরা আরব বিশ্বে সমর্থন হারাচ্ছি’।

    ব্রিটিশ সংবাদপত্রটির সাথে এক সাক্ষাতকারে আমর মুসা ব্রাসেলসে পরিষ্কার জানান, সামরিক অভিযান লিবিয়াতে কোনো পথ খুলে দেবে না। তিনি বলেন, ‘আপনি কোনো নির্নায়ক পরিণতি পাবেন না। রাজনৈতিক সমাধানে পৌঁছার জন্য আমরা যা-ই করতে চাই, তা করার এখনই সময়।’

    এর দ্বারা তিনি সম্ভবতঃ পরিস্থিতি ন্যাটোর বিপক্ষে এবং গাদ্দাফির পক্ষে পরিবর্তিত হচ্ছে বলে বুঝাতে চেয়েছেন মিশরীয় কূটনীতিক, রাজনীতিক ও আরব লীগের এই নেতা।

    মুসা বলেন, ‘আন্তর্জাতিক তত্ত্বাবধানে একটি এমন একটি সাচ্চা যুদ্ধবিরতি শুরু হওয়া দরকার যা কঠোরভাবে কার্যকর করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘যুদ্ধবিরতি পর্যন্ত গাদ্দাফি ক্ষমতায় থাকবেন এবং এ-যুদ্ধবিরতি উভয় পক্ষের দ্বারা গৃহীত হবে। তারপর অগ্রসর হওয়া যাবে একটি রূপান্তর কালের দিকে -  লিবিয়ার ভবিষ্যত সম্পর্কে একটি সমঝতায় পৌঁছুবার দিকে।’

    এর মানে ন্যাটোর আকাশিক বোমা হামলা বন্ধ থাকবে কি-না প্রশ্নের উত্তরে আমর মুসা বলেন, ‘যুদ্ধবিরতি মানে যুদ্ধবিরতি।’ অর্থাৎ, ন্যাটো আকাশিক বোমা হামলা বন্ধ করা আবশ্যিক।

    ইউকেবেঙ্গলির বিশ্লেষণ মতে, লিবিয়া আক্রমণের ক্ষেত্রে ন্যাটোর পিছনে আরব লীগের সর্বসম্মত সমর্থন যেমন আক্রমণের অনিবার্যতাকে ইঙ্গিত করেছিলো, আরব লীগের ধ্বনিত শঙ্কা ও যুদ্ধবিরতির ডাকও একইভাবে ন্যাটোর লিবিয়া অভিযানের সামরিক অধ্যায়ের সমাপ্তির সঙ্কেত দান করছে। এছাড়াও, যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের বদলে পরোক্ষ অবস্থান, ন্যাটোর শক্তির দূর্বলতা, ইত্যাদি মিলিয়ে ন্যাটোর পক্ষে ইতোমধ্যে বর্ধিত ৯০ দিনের বেশি দূর যাওয়া ক্রমশঃ কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এদিকে, লিবিয়া আক্রমণের অন্যতম হোতা ব্রিটেইনের রাজকীয় নৌবাহিনী ও রাজকীয় বিমান বাহিনীর প্রধানদ্বয় দেশটি আক্রমণ অব্যাহত রাখার প্রশ্নে একই রকমের নেতিবাচক ভাষায়  আলাদা-আলাদাভাবে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

    পরিস্থিতির সামগ্রিক বিবেচনায় ধারণা করা যায়, গোয়েন্দা নির্দেশিত বোমার আঘাতে কিংবা গুপ্তঘাতক দিয়ে কর্নেল গাদ্দাফিকে খুন করা করা ছাড়া ইঙ্গ-ফরাসী নেতৃত্বাধীন ন্যাটোর লিবিয়া-মিশন সফল হবার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন