• গাদ্দাফি-পরবর্তী লিবিয়ায় সরকারী নৃশংসতাঃ বনি ওয়ালিদে মানবিক বিপর্যয়
    libya_bani_walid_seized_oct2012.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৬ অক্টোবর ২০১২, শুক্রবারঃ তিন সপ্তা যাবত অবরুদ্ধ গাদ্দাফি-সমর্থক বলে পরিচিত বনি ওয়ালিদ শহরে গতকাল সরকারী সেনাদের আক্রমণে অন্ততঃ ৬০০ মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ইসলামবাদী মিলিশিয়া ও সরকারী সেনারা দাবি করেছে 'বনি ওয়ালিদ এখন তাদের দখলে'। খবর এপি, এএফপি ও রাশিয়া টুডে'র।

    গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দিয়ে জনতান্ত্রিক লিবিয়ার প্রতিষ্ঠাতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে হত্যার মাধ্যমে ক্ষমতাচুত করা হয়েছে গত বছর। তারপর থেকেই চলছে গাদ্দাফি-সমর্থনকারীদের প্রতি নির্বিচার নির্যাতন। স্থানীয় রাজনৈতিক কর্মীরা জানিয়েছে এ-সংঘাতে সবচেয়ে বেশি হতাহত হচ্ছে নারী ও শিশুরা। গত কয়েক সপ্তাহে হাজার-হাজার বনি ওয়ালিদ-বাসী পালিয়ে গিয়েছেন শহরটি থেকে।

    গত ২১ দিন যাবত ওয়ারফালা গোত্র অধ্যুষিত বনি ওয়ালিদ শহর অবরোধ করে রেখেছে সরকারী সেনা ও সশস্ত্র ইসলামবাদী মিলিশিয়ারা। বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়েছে শহরটির বিদ্যুৎ-খাবার-ওষুধ-জলের সরবরাহ। সংবাদ সংস্থাগুলো জানিয়েছে, অবরোধকারীরা ভারি গোলা বর্ষণ করছে বনি ওয়ালিদে। এ-মাসের দ্বিতীয় সপ্তা নাগাদ বিষাক্ত গ্যাসের বোমা নিক্ষেপ করতে শুরু করে তারা।

    নিজস্ব সূত্রের বরাত দিয়ে রুশ টিভি রাশিয়া টুডে গতকাল বনি ওয়ালিদে অন্ততঃ ৬০০ মানুষ নিহত হওয়ার খবর জানিয়েছে। বনি ওয়ালিদের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতালগুলোও রেহাই পায়নি সরকারী গোলার আক্রমণ থেকে।

    আশঙ্কা করা হচ্ছে খাদ্য, জল, চিকিৎসা উপকরণের দূষ্প্রাপ্যতা ও অব্যাহত সামরিক হামলায় পড়ে বনি ওয়ালিদ এখন মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন। আন্তর্জাতিক রেডক্রস দু'দিন আগে প্রায় ২০০ ব্যক্তিকে সরিয়ে এনেছে শহরটি থেকে, যাদের প্রায় সকলেই ভিনদেশি - এঁদের মধ্যে প্রায় ৫০ জন বাংলাদেশি নাগরিক রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

    লিবিয়ার রাজনৈতিক নেতৃত্ব থেকে মুয়াম্মার গাদ্দাফীকে অপসারনের পর থেকে ভেঙ্গে পড়তে শুরু করে দেশটির সাম্যবাদী সমাজের কাঠামো। আগে যেখানে সকল নাগরিকের অন্ন-বস্ত্র-বাসস্থান-চিকিৎসা-শিক্ষার মতো মৌলিক মানবাধিকার নিশ্চিত করতো রাষ্ট্র, এখন মানুষের দৈনন্দিন নিরাপত্তার নিশ্চয়তাও দিতে ব্যর্থ হচ্ছে নতুন শাসকরা।

     

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন