• গৃহযুদ্ধের মধ্যেও সিরিয়ায় গণভৌট অনুষ্ঠিতঃ নতুন সংবিধানের পক্ষে ৮৯% সমর্থন
    Bashar-Al-Asad-votes.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১২, মঙ্গলবারঃ  সিরিয়ার স্থানে-স্থানে আরব-তুর্কী-ইউরোপীয়-মার্কিন সমর্থিত বিদ্রোহী তৎপরতা ও এর বিরুদ্ধে সরকারী অভিযান অব্যাহত থাকা সত্ত্বেও গতকাল রোবরবার দেশটিতে নতুন সংবিধানের উপর গণভৌট অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং প্রদত্ত ভৌটের ৮৯% ভাগ প্রস্তাবিত সংবিধানের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেছে।
     
    রাজধানী দামাস্কাসে গতকাল সোমবার এক সংবাদ-সম্মেলনে সিরিয়ার স্বরাষ্ট্র-মন্ত্রী ইব্রাহিন আল-শার গণভৌটের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা করেন। মন্ত্রীর দেয়া তথ্য-মতে সিরিয়াতে ভৌট-দানে উপযুক্ত জনসংখ্যা হচ্ছে ১৪,৫৮০,০০০, যার মধ্যে ৮,৩৭৬,০০০ ভৌটার অর্থাৎ ৫৭% ভাগ গণভৌটে অংশগ্রহণ করেছেন।

    সিরিয়াতে বিদ্রোহ প্রশমন ও অবাধ নির্বাচনের পথ উন্মুক্তকরণের লক্ষ্যে দেশটির সংবিধানে ১৪টি নতুন ধারা ও ৪৭টি সংশোধন প্রস্তাব করে এই গণভৌট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

    যদিও নতুন সংবিধানে সমাজতন্ত্রবাদী বাথ পার্টির একচ্ছত্র আধিপত্যের সমাপ্তি ও একই ব্যক্তির পর-পর দু'বারের বেশি প্রেসিডেন্ট হওয়ার বিধান রহিত করা হয়েছে, তথাপি বিরোধী দলগুলো এই গণভৌটকে ‘ফাঁকা’ বলে বর্জন করেছে।

    আন্তর্জাতিকভাবে, রাশিয়া ও চীন সিরিয়ার গণভৌটকে সমর্থন করেছে কিন্তু আরব-তুর্কী-ইউরোপ-মার্কিন বলয় এর বিরোধিতা করে প্রেসিডেন্ট আসাদের পদত্যাগ দাবী করছে। এই বলয়-ভুক্ত দেশগুলো প্রেসিডেন্টা আসাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহীদের সশস্ত্র সহযোগিতা করছে এবং ইতোমধ্যে বিরোধীদের দ্বারা গঠিত ‘ন্যাশনাল কাউন্সিল’কে স্বীকৃতি দান করেছে। 

    সিরিয়ার স্বরাষ্ট্র-মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, সশস্ত্র বিদ্রোহীরা হোমস্‌ ও ইদলিবের মতো গোলযোগপূর্ণ স্থানে ভৌটগ্রহণকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছে, কিন্তু রাজধানী দামাস্কাস-সহ অন্যান্য স্থানে শান্তিপূর্ণভাবেই গণভৌট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন