• গোপন চুক্তি লিবিয়ার বিদ্রোহীদেরঃ ৩৫% তেলের মালিকানা পাবে ফ্রান্স
    FRANCE-LIBYA.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১ সেপ্টেম্বর ২০১১, বৃহস্পতিবারঃ মুয়াম্মার গাদ্দাফীর নেতৃত্বাধীন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে সফল হলে ফ্রান্স পাবে লিবিয়ার তেলের শতকরা ৩৫ ভাগ - এ-মর্মে গত এপ্রিলে ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি করেছে বিদ্রোহীদের জোট ন্যাশনাল ট্রানজিশনাল কাউন্সিল (এনটিসি)। ফরাসী সংবাদপত্র 'লিবারেশন' আজ এ-সংবাদ জানিয়েছে।

    লিবারেশনের রিপোর্ট অনুসারে, এপ্রিলের ৩ তারিখে এনটিসির পক্ষ থেকে পাঠানো এক চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে যে, 'ফ্রান্স এনটিসিকে সর্বাত্মক ও স্থায়ী সাহায্য দেয়ার বিনিময়ে লিবিয়ার তেলের ৩৫ শতাংশ পাবে।' উল্লেখ্য ফ্রান্সই সর্বপ্রথম বিদ্রোহীদেরকে লিবিয়ার আনুষ্ঠানিক শাসক হিসেবে স্বীকৃতি দেয় এবং অন্যান্য পশ্চিমা রাষ্ট্রকেও তা করতে প্রভাবিত করে। মার্চ মাসে ফ্রান্সই প্রথম লিবিয়ায় বিমান-হামলা শুরু করে এবং জাতিসঙ্ঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে বিদ্রোহীদেরকে অস্ত্র ও অন্যান্য যুদ্ধাস্ত্র সরবরাহ করে।

    ফ্রান্সের বিদেশ-মন্ত্রী এ্যালাইন যুপে মন্তব্য করতে গিয়ে জানিয়েছেন, তিনি এ-সম্পর্কে অবহিত নন, তবে তিনি মনে করেন, লিবিয়ার বিদ্রোহীদেরকে সাফল্য পেতে সহযোগীতা প্রদানকারী হিসেবে 'লিবিয়া পুনঃনির্মাণে' ফ্রান্সের অগ্রগামী ভূমিকা থাকাটাই স্বাভাবিক। বিশেষজ্ঞদের মতে, ষুপের বর্ণিত 'পূনঃনির্মাণ' আসলে লিবিয়ার সম্পদ হানাদার জোটের মধ্যে পুনর্বন্টনেরই নামান্তর - সাদ্দাম হোসেনকে ক্ষমাতাচ্যুত ও পরে ফাঁসি দেয়ার পর যেমনটা ঘটছে ইরাকে।

পাঠকের প্রতিক্রিয়া

হে অতিথি, মজা পাইয়াছেন জানিয়া আনন্দিত হইলাম। নিশ্চিত হইলাম আপনি আমার পরিচিত। ধন্যবাদ।

সরেশ মজা পাইলাম! হা হা হা!

সুন্দর বক্তব্যের জন্য ফয়সল ইকরামকে ধন্যবাদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই ভদ্রলোকের সমস্যা সম্ভবতঃ মার্কস বা লিবিয়া বা বিশেষজ্ঞ এসব নয়। মাঝে মধ্যে ইনি অতিথি হিসেবে মন্তব্য করেন। তাকে অনুরোধ করবো মূল সমস্যা কি জানান। আমি জানি আপনি ইউকেবেঙ্গলির একজন নিয়মিত পাঠক এবং আমার পরিচিত। আপনার লেখা পড়লেই আমি বুঝতে পারি। আপনি যেভাবে কথা বলেন, লেখেন ও কিন্তু সেভাবেই। আশা করি ভবিষ্যতে মন্তব্য স্বনামে করবেন। আমি জানি আপনি কাপুরুষ নন। অপেক্ষায় থাকলাম।

'বেনাম-বিরোধী' বেনামী অতিথির প্রতি

০) এখানকার নিয়মিত একজন পাঠক হিসেবে আপনার অহেতুক প্রতিক্রিয়াশীল মন্তব্যের প্রতি উত্তর না দিয়ে পারছি না।

১) বিশেষজ্ঞদের নাম-সাকিন জানতে এতই আগ্রহী, তবে নিজনাম প্রকাশে লজ্জিত কেন, হে?

২) পত্র-পত্রিকা পড়ার অভ্যাস আছে যাদের, তাদের জানা থাকার কথা, কনটেম্পোরারী ইস্যুর রিপোর্টে এক্সপার্ট অপিনিয়ন নানাভাবে আসে - এক্সপার্টদের পরিচয়-প্রকাশ সর্বদা গুরুত্ব পায় না। অবশ্য যাদের এ অভ্যাস নেই তাদের পক্ষে এরকম ঘ্যানোর ঘ্যানোর আব্দার করা অসম্ভব নয় বটে!

৩) অযাচিতভাবে 'মার্ক্সীয় ফার্মেন্টেশন' আনয়ণের লক্ষন-বিচারে ধারণা করা যায়, বেনামী অতিথির সম্ভবত মার্ক্সীয় দর্শনে 'এলার্জি' আছে। নিজ নিজ স্বাস্থ্য সমস্যা নিজ গৃহে রাখাই সমীচিন নয় কি, হে বেনামি অতিথি?

৪) সামগ্রীক বিচারে অর্থহীন আপনার মন্তব্য। দ্যা ভেরি নিউজ, ফ্রান্সের সাথে রেবেলদের 'সিক্রেট ডীল', আপনাকে আলোড়িত করেনি - করেছে, এক্সপার্ট অপিনিয়নের এক্সপার্টদের জাত-বিচারে চেষ্টা! একটা সমৃদ্ধ দেশকে সামরিক ও প্রচার-শক্তির জোরে কয়েকটা দেশ মিলে তছনছ করে দিচ্ছে, তাতে আপনার কোন প্রতিক্রিয়া নেই! কী আশ্চর্য!

৫) ফেলো রীডার হিসেবে বলবো, আগ-পাশ-তলা বিহীন কুৎসা কাউকেউ সাহায্য করে না। দয়া করে কন্সট্রাকটিভলি ক্রিটিসাইজ করুন, আপনার সাথে সাথে তা অন্যদেরকেও সমৃদ্ধ হতে সহায়তা করবে।

- ফয়সল

লিবিয়ার পরিনতি ইরাকের মতো হবে তা বুঝতে বিশেষজ্ঞ হতে হয়না। লিবিয়া যে ইরাক হবে তা এখন ওপেন সিক্রেট। ইয়োরেপের তেল কৌম্পানীগুলো লুকচুরি না করে সরাসরিই দর কষাকষি করছে। ইরাক যুদ্ধে এক্সন, বিপি, শেভরন(টেক্সাকো) এর মতো কর্পোরেশনগুলো ইরাকের তেলসম্পদ দখলের জন্য উঠে পড়ে লেগেছিলো। এবর ইউরোপিয়ান কৌম্পানীগুলো লিবিয়ার তেলসম্পদ দখলের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। ফ্রান্সের "টোটাল" ইতালীর "এনি" মতো কৌম্পানীগুলো মার্চ মাসে বেনগাজীতে রিবেলদের সাথে তেল ভাগাভাগীর ব্যাপারে আলোচনা শুরু করে। "টোটাল" ঘোষনা দিয়ে বেনগাজীতে তাদের টিম পাঠায় রিবেলদের সাহায্য করার জন্য।এসব তেল কৌম্পানী দুবাই এবং ইংল্যান্ড ভিত্তিক মার্সেনারী গ্রুপগুলোকে ভাড়া করে বেনগাজীতে নিয়ে যায় এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে। ederএদের স্ট্রেটিজিক ইন্টারেষ্ট তখনই পরিষ্কার হয়ে যায়।

এই তথাকথিত 'বিশেষজ্ঞ'গন কি মার্কসীয় ফারমান্টেশনের ফসল নাকি?

বিশেষজ্ঞরা বেনামে ইতিউতি কথা বলছেন, আর আপনারাও দেদারসে ছাপিয়ে যাচ্ছেন... আর কিছু নেই পাবলিশ করার ভায়া?

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন