• গৌল্ডম্যান স্যাক্সের সাথে লেনদেনে লিবিয়ার আর্থিক ক্ষতিঃ ২.১ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দাবী
    Posters-of-Libyan-Leader--020.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৩ জুন ২০১৬, সোমবারঃ যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ ব্যাঙ্ক গৌল্ডম্যান স্যাক্সের বিরুদ্ধে লণ্ডনের উচ্চ আদালতে ২.১ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা করেছে লিবিয়ার জাতীয় বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবী গৌল্ডম্যানের পরামর্শে বিনিয়োগ করে এ-ক্ষতির শিকার হয়েছে দেশটির জাতীয় বিনিয়োগ তহবিল। খবর জানিয়েছে বিবিসি ও রয়টার্স।

    ২০০৮ সালের নয়টি লেনদেনকে কেন্দ্র করে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। লিবিয়া দাবী করেছে যে, জটিল অর্থনৈতিক বিনিয়োগ লেনদেনে তাদের অনভিজ্ঞতা ও সরলতার সুযোগ নিয়ে গৌল্ডম্যান প্রথমে তাদের বিশ্বাস অর্জন করেছে এবং পরে উল্লিখিত লেনদেনগুলো করতে প্রভাবিত করেছে।

    অভিযোগের ভিত্তি হিসেবে লিবিয়া দাবী করেছে যে, গৌল্ডম্যান অনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ব্যবসা পেয়েছিলো। আলোচ্য তহবিলের তৎকালীন উপ-প্রধান ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগ্রহনকারী মুস্তাফা জার্তির ভাই হাতেম জার্তিকে গৌল্ডম্যান স্যাক্সে চাকুরি দেওয়া হয়।

    আজ লণ্ডনে শুরু হওয়া মামলার শুনানির প্রথম দিনে লিবীয় পক্ষের উকিল রজার মেইসফীল্ড বলেছেন, হাতেমকে মরক্কো থেকে দুবাই পর্যন্ত এক বিলাসবহুল ভ্রমণের খরচ বহন করেছিলো গৌল্ডম্যান স্যাক্সের কর্মকর্তা ইউসেফ কাবাজ। তিনি আরও বলেন, দুবাইয়ে হাতেমকে পাঁচতারকা রিট্‌জ কার্লটন হৌটেলে রাখা হয়; সে-সময় তার প্রমোদের জন্য ভাড়া করা দু'জন বারবণিতার খরচও মিটিয়েছিলো ইউসেফ।

    গৌল্ডম্যান স্যাক্স কর্তৃপক্ষের তরফ মামলার মূল অভিযোগ - অর্থাৎ, গৌল্ডম্যানের পরামর্শে লিবিয়া আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে - তা পুরোপুরি অস্বীকার করা হয়েছে। তারা যদিও হাতেম জার্তিকে চাকুরি দেয়ার কথা অস্বীকার করেননি, তবে দাবী করেছেন যে দুবাইয়ে বারবণিরা খরচ দেওয়ার ব্যাপারে তারা সে-সময় অবহিত ছিলেন না।

    মার্কিন গৌল্ডম্যান স্যাক্সস ছাড়াও ফরাসী সোসিয়েতে জেনাহ্যালে ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধেও মামলা করেছে লিবিয়া যাতে ২.১ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দাবী করা হয়েছে। সে-মামলাটি আগামী বছরের গোড়ার দিকে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

    ন্যাটোর সহায়তায় লিবিয়ার ইসলামবাদী বিদ্রোহীদের হাতে নিহত হওয়ার আগে লিবিয়ার নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফী ২০০৬ সালে এ-তহবিলটি গড়ে তোলেন। জ্বালানী তেল থেকে উপার্জিত অর্থ বিনিয়োগ করে জাতীয় সম্পদের বর্ধন ও ক্রমশ তেলের উপর থেকে রাজস্ব নির্ভরতা কমানো ছিলো উদ্দেশ্য।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন