• তুরষ্কে পরিবেশবাদী আন্দোলন থেকে সরকার-বিরোধী আন্দোলনঃ কেন্দ্রস্থল তাক্সিম স্কোয়ার
    turkey_taksin_square_1jun13.png

    ইউকেবেঙ্গলি - ১ জুন ২০১৩, শনিবারঃ  তুরষ্কের ইস্তানবুলে একটি পার্ককে বাণিজ্যিক কেন্দ্রে রূপান্তরের বিরুদ্ধে স্থানীর অধিবাসীদের প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিসের অত্যধিক বলপ্রয়োগের কারণে তা সরকার-বিরোধী আন্দোলনে রূপ নিয়েছে। টানা দু'দিন বিক্ষোভকারীদের সাথে সহিংস সংঘর্ষের পর পুলিস আজ তাক্সিম স্কোয়ার ছেড়ে গিয়েছে। এ-মুহূর্তে হাজার-হাজার মানুষ স্থানটি দখল করে অবস্থান করছে।

    ইস্তানবুলের গাজি পার্ককে অটোমান-সাম্র্যাজ্য যুগের ঐতিহাসিক তাক্সিম সেনা-ব্যারাকে রূপান্তর প্রকল্প নেয় কর্তৃপক্ষ। পরিকল্পনা অনুযায়ী ঐ স্থাপনার  নিচতলাটি হবে বাণিজ্যিক ও বিপণী কেন্দ্র। ইস্তানবুলে দ্রুত অপসৃয়মান সবুজ মুক্তস্থানের অভাবের কারণ দেখিয়ে পরিবেশবাদীরা এ-প্রকল্পের বিরোধিতা করছে। 

    গত ২৮ মে পার্কের দেয়ালগুলো গুড়িয়ে দেয়ার কাজ শুরু হয়। এর আগেই প্রত্যুষে জনা পঞ্চাশেক ব্যক্তি পার্কটিতে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান নেয় প্রতিবাদে জানাতে। বাম-ঘেঁষা দল পীস এ্যাণ্ড ডেমৌক্র্যাসি পার্টি সংশ্লিষ্ট পার্লামেন্ট সদস্য ও চলচ্চিত্র নির্মাতা সিরি সুরায়া ওন্দারের সহায়তায় স্বল্প সময়ের জন্য বুল্ডোজারের কর্মকাণ্ড বন্ধ করাও সম্ভব হয়। কিন্তু বিক্ষোভকারীদেরকা হটাতে পুলিস টীয়ার গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করে।  

    বিক্ষোভকারীদের উপর বল প্রয়োগের ঘটনা কর্তৃপক্ষের জন্য উল্টো ফল বয়ে আনে। আরও অনেক নাগরিক যোগ দেন বিক্ষোভে এবং পার্কেই তাঁবু খাটিয়ে রাত্রি যাপন করেন তাঁরা। ফেইসবুক, ট্যুইটার ইত্যাদি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বিক্ষোভে যোগদানের আহবান। অগণিত সাধারণ মানুষে সাথে তুরষ্কের অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিও সাড়া দেন তাতে।  

    গতকাল বিক্ষোভ চলা-কালে পুলিস পুনরায় টীয়ারগ্যাস ও পিপার স্প্রে ব্যবহার করে। এ-সময় টীয়ার গ্যাসের কার্টিজের আঘাতে এমপি ওন্দার আহত হলে, তাঁকে হাসপাতালে নেয়া হয়। তুর্কি চিকিৎসকদের সংঘ ডক্টর্স এ্যাসৌসিয়েশন জানিয়েছে, প্রায় হাজারখানেক ব্যক্তি আহত হয়েছেন, যাঁদের মধ্যে ৬ জন চোখ হারিয়েছেন। পুলিস অন্ততঃ ৬৩ জনকে গ্রেফতার করে। 

    শুধু ইস্তানবুলেই নয়, বড়ো আকারের বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে আঙ্কারা, ইজমির-সহ আরও অনেকগুলো শহরে। আঙ্কারাতে রাত-ব্যাপী পুলিসের সাথে সংঘর্ষ চলে বিক্ষোভকারীদের। আজ ইস্তানবুলের নাগরিকেরা হাজারে-হাজারে পথে নেমে আসে। স্থানীয় সময় বিকেল চারটার দিকে তাক্সিম স্কোয়ার থেকে পুলিস প্রত্যাহার করে নেয় কর্তৃপক্ষ, যেখানে দ্রুত বিক্ষোভকারীদের অবস্থান গ্রহণ করেছেন। 

    প্রধানমন্ত্রী তায়িপ এর্দোগান বিক্ষোভ বন্ধ করার আহবান জানিয়ে বলেছেন, পার্ককে ব্যারাকে রূপান্তরের প্রকল্পটি বন্ধ হবে না। তিনি অবশ্য পুলিসের বলপ্রয়োগকে 'ভুল' বলে স্বীকার করেন।  

    পুলিসের বলপ্রয়োগ আন্তর্জাতিক মহলে সমালোচিত হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্টেইট ডিপার্টমেণ্ট উদ্বেগ প্রকাশ করেছে তুরষ্কের দীর্ঘকালীন স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তার বিষয়ে। ব্রিটেইনের ফরেন অফিস তুর্কি পুলিসের 'নির্বিচার'  টীয়ার গ্যাস ব্যবহারের নিন্দা জানিয়েছে। প্রতিবেশি সিরিয়ার তথ্যমন্ত্রী ওমরান জোয়াবি তুর্কি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেছেন,  'শান্তিপূর্ণ বিক্ষোকারীদের নির্যাতন বন্ধ করুন অথবা পদত্যাগ করুন'।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন