• তুরষ্কে ব্যর্থ ক্যুঃ তিন মাসের জরুরী অবস্থা ঘোষিত, ৫০,০০০ অপসারিত
    turkey_purge.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২০ জুলাই ২০১৬, বুধবারঃ গত শুক্র ও শনিবারের মধ্যে তুরষ্কে সঙ্ঘটিত ব্যর্থ সেনা-অভ্যুত্থানকে কেন্দ্র করে দেশটিতে আজ তিন মাসের জন্য জরুরী অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। দেশটির কর্তৃপক্ষ আশঙ্কা করছে নতুন করে আবারও ক্যু করার চেষ্টা করা হতে পারে।

    জরুরী অবস্থা জারি প্রসঙ্গে এর্দোয়ান বলেছেন, "[জরুরী অবস্থা জারির] উদ্দেশ্য হচ্ছে, গণতন্ত্র ও আইনের শাসনে ফিরে যাওয়ার সবচেয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পারা"। তিনি আরও বলেন, এ-সময় সশস্ত্র বাহিনী রাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণ নিবে না।

    গত সপ্তার ব্যর্থ সেনা-অভ্যুত্থাকে উপলক্ষ্য করে তুরষ্কের রাজনীতি ও রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানাদিতে ক্ষিপ্রতার সাথে গভীর পরিবর্তন আনা হচ্ছে। প্রেসিডেণ্ট রেজিপ তায়েপ এর্দোয়ানের সরকার ক্যু'র সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে এ-পর্যন্ত অন্ততঃ ৯,০০০ সামরিক ও বেসামরিক নাগরিককে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও বিচারক, আইনজীবী, শিক্ষক, শিক্ষা-বিভাগের আমল-সহ অন্ততঃ ৫০,০০০ পেশাজীবী ও সরকারী কর্মচারীকে অপসারন করা হয়েছে অথবা পদত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে।

    এ-ক্যু'র পেছনে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী তুর্কী ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেন জড়িত বলে শুরু থেকেই দাবী করছেন এর্দোয়ান। এর্দোয়ানের মতো গুলেনও ইসলামবাদী রাজনীতি প্রতিষ্ঠায় দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন। এ-সূত্রে উভয়ে এক সময় একে অপরের ঘনিষ্ঠ মিত্র ছিলেন। উল্লেখ্য, ধর্মীয় রাজনীতিতে গুলেনের অবস্থানকে এর্দোয়ানের চেয়ে "নমনীয়" বলে বর্ণনা করা হয়ে থাকে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন