• ত্রুটিপূর্ণ অনুমানে লিবিয়া যুদ্ধঃ ক্যামেরোনকে দায়ী করেছে সংসদীয় কমিটী
    uk_parliament_fac_libya_report.png

    ইউকেবেঙ্গল - লণ্ডন, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬, বুধবারঃ অসম্পূর্ণ গোয়েন্দা তথ্য ও ত্রুটিপূর্ণ অনুমানের ভিত্তিতে ২০১১ সালে লিবিয়ায় যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছিলো ব্রিটেইন। আর সেই যুদ্ধের আদেশদাতা হিসেবে দায় নিতে হবে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোনকে। আজ এমন এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ পার্লামেণ্টের ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটী।

    লিবিয়ায় যুদ্ধ ও তার ফলে দেশটির রাষ্ট্রযন্ত্র ধ্বসে যাওয়া সম্পর্কে বিস্তারিত অনুসন্ধানের ভিত্তিতে সংসদীয় কমিটী ৫৩ পৃষ্ঠার এই প্রতিবেদন তৈরী করেছে।

    ২০১১ সালে ব্রিটেইন ও ফ্রান্সের নেতৃত্বে লিবিয়া আক্রমণ করে ইউরো-মার্কিন সামরিক জোট ন্যাটো ও সৌদি আরবসহ কয়েকটি সুন্নি-শাসিত রাষ্ট্র। প্রায় সাত মাস যুদ্ধের পর লিবীয় নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে হত্যার মাধ্যমে উৎখাত করতে সক্ষম হয় ন্যাটোর সমর্থনপুষ্ট সরকার-বিরোধীরা।

    লিবিয়ার সরকারের হাতে বিরোধীদের সম্ভাব্য প্রাণনাশ ঠেকানোকে যুদ্ধের কারণ হিসেবে ব্রিটিশ জনগনকে জানিয়েছিলো ক্যামেরোনের সরকার। তবে, সংসদীয় কমিটীর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এটি ক্রমশ সরকার বদলের যুদ্ধে রূপ নিয়েছিলো।

    সংসদীয় কমিটীর চেয়ারম্যান, কনসার্ভেটিভ পার্টির ক্রিস্পিন ব্লাণ্ট বলেছেন, "লিবিয়ায় ব্রিটেইনের কর্মকাণ্ড ছিলো কুপরিকল্পিত হস্তক্ষেপের অংশ, যার ফলাফল এখনও দেখা যাচ্ছে"।

    প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সরকার-বিরোধী বেসামরিক জনগণের প্রাণনাশের আশঙ্কা যে ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে দেখানো হয়েছিলো, ক্যামেরোনের সরকার তা অনুধাবন করতে ব্যর্থ হয়েছিলো। যুদ্ধ-পরবর্তী নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সামাল দিতেও ব্যর্থ হয়েছে ব্রিটিশ সরকার।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন