• দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্রিটিশ মালিকানার প্ল্যাটিনাম খনিতে পুলিসের গুলিতে ১৮ শ্রমিক নিহত
    MinersKilled-SAfrica.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৬ অগাস্ট ২০১২, বৃহস্পতিবারঃ  দক্ষিণ আফ্রিকার জোহান্সবার্গের ১০০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে ব্রিটিশ কোম্পানী ‘লোনমিন পিএলসি’র মালিকানাধীন মারিকানা প্ল্যাটিনাম খনিতে মূলতঃ বেতন-বৃদ্ধির দাবিতে শুরু হওয়া আন্দোলনকে ঘিরে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ইউনিয়নের মধ্যে কলহের জের ধরে পুলিসের গুলিতে কমপক্ষে ১৮ লড়াকু শ্রমিক নিহত হয়েছে বলে দেশটির নেতৃস্থানীয় বার্তা-সংস্থা এসএপিএ জানাচ্ছে।

    মূল ধারার পশ্চিমা সংবাদ-মাধ্যমগুলো ঘটনাটিকে পুলিসের উপর ধর্মঘটী জঙ্গী শ্রমিকদের আক্রমণের ফলে উদ্ভূত বলে রিপৌর্ট করছে, যদিও কোনো-কোনো মাধ্যম বলছে যে, ঘটনাটির মূলে আছে শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির দাবি।

    দৃশ্যতঃ লড়াকু শ্রমিক ইউনিয়ন ‘এ্যামকু’ (এ্যাসৌসিয়েশন অফ মাইনওয়ার্কার্স এ্যাণ্ড কনস্ট্রাকশন ইউনিয়ন) ধর্মঘট ডেকে পিকেটিং শুরু করলে দেশটির প্রধানতম খনি-শ্রমিক ‘নাম’-এর (ন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ মাইনওয়ার্কার্স) সাথে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। কিন্তু ধর্মঘটী শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ জঙ্গী প্রতিরোধের মুখে ধর্মঘট বিরোধী শক্তি হার মানে। বর্শা ও গদা হাতে সশস্ত্র প্রায় তিন হাজার শ্রমিকদের সাথে যোগ দেয় তাঁদের স্ত্রীগণ।

    আজ আকাশে ‘হেলিকপ্টার কাভারেইজ’ এবং মাটিতে ‘আর্মার্ড ভেহিকল’-সহ ৩,০০০ পুলিস মারিকানা প্ল্যাটিনাম খনিকে ধর্মঘটী শ্রমিকদের হাত থেকে মুক্ত করার জন্য অবস্থান নেয়। পুলিসের পক্ষ থেকে ধর্মঘটীদের সরে যেতে বলা হলে ‘এ্যামকু’র প্রেসিডেন্ট ইউসেফ মাথুনওয়া প্রত্যাখান করেন এবং 'প্রয়োজন এখানেই জীবন দিবো' বলে প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেন।

    প্রাইভেট টিভি চ্যালেন ইটিভিতে প্রচারিত ভিডিও ফুটেইজে দেখা যায়, পুলিস স্বয়ংক্রিয় আগ্নেয়াস্ত্র থেকে হঠাৎ গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ-সময় পুলিসের এক কর্মকর্তাকে ‘সিস ফায়ার’ বলে অধীনস্থদের থামার নির্দেশ দিতে শোনা যায়, কিন্তু গুলি বর্ষণে সৃষ্ট ধুলিমেঘ সরে গেলে অনিশ্চিত সংখ্যক শ্রমিকের নিথর দেহ মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এসএপিএ তার নিজস্ব সংবাদ-কর্মীকে উদ্ধৃত করে জানায়, তিনি মোট ১৮টি লাশ গুণতে পেরেছেন।

    এদিকে লোনমিন পিএলসি’র লণ্ডনস্থ হেডকোয়ার্টার্স থেকে বলা হয়েছে, এ-ঘটনার মূলে আছে দুটি প্রতিদ্বন্দ্বী শ্রমিক ইউনিয়নের সংঘর্ষ। কর্তৃপক্ষ জানায়, ধর্মঘট জনিত উৎপাদন প্রতিবন্ধকতার কারণে কোম্পানীটির পক্ষে এ-বছরের লক্ষ্যমাত্রা ৭৫,০০০ আউন্স প্ল্যাটিনাম উৎপাদন করা সম্ভব হবে না। ইতোমধ্যে লণ্ডন স্টক এক্সচেইঞ্জে লোনমিনের শেয়ার-মূল্য ১৩% হ্রাস পেয়েছে।

    উল্লেখ্য, উচ্চমূল্যের ধাতু প্ল্যাটিনাম সমগ্র বিশ্বে যা উৎপাদ করা হয়, তার ৮০% হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়। আর, ব্রিটিশ কোম্পানী লোনমিন হচ্ছে পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম প্ল্যাটিনাম উৎপাদক।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন