• 'ন্যাটো-বিরোধী' জোট সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজ়েশনে যোগ দিলো ন্যাটো-সদস্য তুরষ্ক
    turkey_becomes_sco_dialog_partner_member_01.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৮ এপ্রিল ২০১৩, রোববারঃ  পশ্চিমা পুঁজিবাদী রাষ্ট্রসমূহের সামরিক জোট ন্যাটোর একমাত্র মুসলিম সদস্য-রাষ্ট্র তুরষ্ক 'ন্যাটো-বিরোধী' বলে প্রচারিত সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজ়েশনে (স্কৌ) যোগ দিয়েছে। কাজাখস্তানের আলমাতি শহরে স্বাক্ষরিত এক চুক্তির মাধ্যমে তুরষ্ককে স্কৌ'র 'ডায়ালগ পার্টনার' বা সংলাপ অংশীদার হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে রাশিয়া, চীন ও মধ্য এশিয়ার সাথে তুরষ্কের নিরাপত্তা ও পরিবহণ-সহ বিভিন্ন খাতে পারস্পরিক আদান-প্রদানের পথ প্রশস্ত হলো। তুরষ্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে এ-সংবাদ।

    তুর্কী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আহমেত দাভুতোলু চুক্তি-স্বাক্ষর-শেষে স্কৌতে প্রবেশাধিকার দেয়ার জন্য সংস্থাটির সদস্য-রাষ্ট্রসমূহকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, '[স্কৌ সদস্যদের] সাথে হাত ধরাধরি করে আমাদের দীর্ঘ পথ-চলার সূচনা হলো'। সংস্থাটির মহাসচিব দিমিত্রি মেজ়েন্তসেভ চুক্তি স্বাক্ষরের দিনটিকে নির্দেশ করে বলেন, 'এ-দিনটি শুধুমাত্র তুরষ্ক নয় আমাদের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ'। তবে লক্ষ্য করা বিষয় হচ্ছে, এঁদের কেউই তুরষ্কের ন্যাটো-সদস্যতার প্রসঙ্গে কিছু উল্লেখ করেননি।

    ভৌগলিকভাবে ইউরোপ ও এশিয়ার মধ্যে অবস্থিত তুরষ্ক দীর্ঘদিন যাবত ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য হতে চেষ্টা করে যাচ্ছে। তবে দৃশ্যতঃ এখনও তাতে সফল না হওয়ায় দেশটি অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে। কয়েক মাস আগে দেশটির প্রেসিডেণ্ট রেজিপ তায়িপ এরদোগাঁ বলেছিলেন, 'ইউরোপীয় ইইউ তুলনায় স্কৌ বেশি শক্তিশালী'।

    দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধান্তে ইউরোপে সমাজতান্ত্রিক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রভাব ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে গঠিত হয় পুঁজিবাদী দেশগুলোর সামরিক জোট নর্থ আটলাণ্টিক ট্রীটি অর্গানাইজেশন - সংক্ষেপে ন্যাটো (NATO)। পৃথিবীর অন্যান্য অঞ্চলেও যুক্তরাষ্ট্র একই লক্ষ্যে গড়ে তোলে সিয়েটো ও সেণ্টোর মতো অনেকগুলো সামরিক জোট। তবে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাওয়ার পর একমাত্র ন্যাটোই এখনও সক্রিয় রয়েছে এবং সমগ্র পৃথিবীতে উত্তরোত্তর এর কার্যক্রম বাড়ছে। ইরাক,আফগানিস্তান, লিবিয়া ইত্যাদি দেশে যুদ্ধে ন্যাটো সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে।

    অন্যদিকে চীন, রাশিয়া, কাজাখস্তান, কিরঘিস্তান, তাজিকিস্তান ও উজবেকিস্তানকে নিয়ে ২০০১ সালে গঠিত হয় এশীয়-ইউরোপীয় সামরিক সহযোগিতা সংস্থা সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজ়েশন (স্কৌ)। অবশ্য উজবেকিস্তান বাদে অন্য পাঁচটি রাষ্ট্র ১৯৯৬ সাল থেকেই 'সাংহাই ফাইভ' নামের একটি জোটের অংশ ছিলো, ২০০১ সালে তা স্কৌ নাম ধারণ করে। বর্তমানে এর পর্যবেক্ষক সদস্য হিসেবে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান ও মঙ্গোলিয়া। তুরষ্ক ব্যাতীত অন্য সংলাপ-অংশীদার সদস্যগুলো হচ্ছে বেলারুশ ও শ্রীলঙ্কা।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন