• পাকিস্তানের হাসপাতালে আত্মঘাতী বোমায় ৭০ নিহতঃ তালেবানের একাংশের 'কৃতিত্ব' দাবী
    quetta_blast.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - লণ্ডন, ৮ অগাষ্ট ২০১৬ সোমবারঃ আজ পাকিস্তানের কোয়েটা শহরে একটি হাসপাতালে আত্মঘাতী বোমার বিষ্ফোরণ ঘটেছে। আততায়ীর গুলিতে একজন বিশিষ্ট আইনজীবী নিহত হওয়ার পর তার মরদেহ যে হাসপাতালে আনা হয় সেখানে জমায়েত অন্যান্য আইনজীবী ও সাংবাদিকদের হত্যার উদ্দেশ্যে এ-হামলা চালানো হয় বলে মনে করছে বালুচিস্তান প্রাদেশিক সরকার।

    পাকিস্তানী তালেবান থেকে উদ্ভূত জামাত-উল-আহরার নামের একটি ইসলামবাদী সংগঠন উভয় হামলার দায়িত্ব নিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি ও রয়টার্স। অতীতে সংগঠনটি এ-ধরণের হামলায় জড়িত না থেকেও কৃতিত্ব চেয়েছিলো তাই আজকের বোমা-কাণ্ডে তাদের সম্পৃক্ততা সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

    ঘটনার শুরু হয় বালুচিস্তান বার এসৌসিয়েশনের প্রধান বিলাল আনোয়ার কাসিকে গুলি করে হত্যার মাধ্যমে, যিনি সে-সময় আদালতে যাচ্ছিলেন। তাঁর মরদেহ হাসপাতালে আনা হলে সেখানে জড়ো হন বহু সংখ্যক আইনজীবী, সাংবাদিক ও তাঁর শুভাকাঙ্খী। এমন পরিস্থিতিতে শক্তিশালী বোমাটির বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়, যার আঘাতে এখন পর্যন্ত ৭০ জনের প্রাণহানির সংবাদ পাওয়া গিয়েছে।

    তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান জামাত-উল-আহরাকে মাত্র গত সপ্তায় যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করেছে। গত বছর কেন্দ্রীয় প্রশাসনের অধীনস্থ পাহাড়ী এলাকা থেকে তালেবানকে হটিয়ে দেওয়ার পর তারা সীমান্ত পেরিয়ে আফগানিস্তানে আশ্রয় নেয়। আল-জাজিরার বিশ্লেষক টম হুসেইন আজ এক প্রতিবেদনে জানাচ্ছেন, ইসলামী ষ্টেইটের আফগানিস্তান শাখার সাথে পাকিস্তানী তালেবান কৌশলগত মৈত্রী করেছে। সেখানে তারা অপারেশন্যাল বেইস বা ঘাঁটি গড়ে তুলেছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন