• পুতিনের প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি স্বাক্ষরিত
    ukraine_ceasefire_agreed_in_minsk_5sep2014.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪, শুক্রবারঃ ইউক্রেনের গৃহযুদ্ধ বন্ধে রুশ প্রেসিডেণ্ট ভ্লাদিমির পুতিনের প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে যুদ্ধরত সরকার ও স্বাধীন-ঘোষিত বিদ্রোহী প্রদেশগুলো। আজ প্রেসিডেণ্ট পেত্রো পোরোশেঙ্কো আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করেছেন যুদ্ধবিরতির সংবাদ। খবর ইথার-তাশ, এসৌসিয়েটেড প্রেস, বিবিসি ও আরটির।

    আজ স্থানীয় সময় সন্ধ্যে ছটায় (লণ্ডন সময় বেলা চারটায়) পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি শুরু হওয়ার কথা। রেলারুশের রাজধানী মিন্‌স্কে এ-সম্পর্কিত একটি সমঝোতা স্বাক্ষরিত হয়েছে উক্রাইনের সরকার এবং স্বাধীনতাকাঙ্খী দনেৎস্ক ও লুহান্‌স্ক জনতন্ত্রের মধ্যে। প্রেসিডেণ্ট পোরোশেঙ্কো তাঁর সেনাদলকে নির্দেশ দিয়েছেন সন্ধ্যে ছ'টায় গোলাগুলি বন্ধ করতে।

    রাশিয়া ও ইউরোপীয় নিরাপত্তা ও সহযোগিতা সংস্থা - ওএসসিইর উপস্থিতিতে ইউক্রেনের সরকার ও বিদ্রোহীদের মধ্যে আজ মিন্‌স্কে রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর পোরোশেঙ্কো যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেন। ওএসসিইর হেইডি টাগ্লিয়াভিনি সাংবাদিকদের জানান, শান্তির শর্ত হিসেবে মোট বারোটি দফা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

    বিদ্রোহী দনেৎস্কের নেতা আলেক্সাণ্ডার জাখার্চেঙ্কোও স্বস্তি জানিয়েছেন অস্ত্রবিরতিতে। তিনি বলেন, "এ-যুদ্ধবিরতি শুধু বেসামরিক প্রাণই নয়, বরং যারা নিজেদের ভূমি ও আদর্শ রক্ষায় হাতে অস্ত্র তুলে নিয়েছে তাদেরকেও রক্ষা করবে।" তবে অপর বিদ্রোহী প্রদেশ লুহান্‌স্কের নেতা আইগোর প্লোৎনিৎস্কি সাংবাদিকদের বলেন, "এর মানে এই নয় যে আমাদের [ইউক্রেন থেকে] বিচ্ছিন্নতার অভিমুখে [চলা] বন্ধ হয়ে গেলো।"

    বিদ্রোহী দুই প্রদেশ কি ইউক্রেনেরই অন্তর্ভূক্ত থাকবে না-কি আলাদা রাষ্ট্র গড়তে পারবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে সহিংসতা বন্ধ হওয়ায় অন্ততঃ সে-সম্পর্কিত আলাপ-আলোচনার পথ এখন উন্মুক্ত হলো। লুহান্‌স্কের প্রধানমন্ত্রী গতকাল ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, বৃহত্তর স্বায়ত্বশাসন পেলে তিনি ইউক্রেনের সাথে থাকতে সম্মত হবেন।

    এপ্রিল মাসে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে এ-পর্যন্ত প্রায় ২,৬০০ ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছে বলে মনে করে জাতিসঙ্ঘ। এছাড়াও প্রায় দুই লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন