• বাংলাদেশের ঈদগায় 'সন্ত্রাসী' হামলাঃ পুলিস-সহ ৪ জনের প্রাণহানি
    sholakia_terrorist_arrested.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৭ জুলাই ২০১৬, বৃহস্পতিবারঃ আজ বাংলাদেশের বৃহত্তম ঈদের জামাত শোলাকিয়ায় বন্দুক, দা ও চাপাতি ব্যবহার করে 'সন্ত্রাসী' হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে দু'জন পুলিস সদস্য ও একজন আক্রমণকারী নিহত হয়েছে। তাদের গোলাগুলির মাঝে পড়ে একজন স্থানীয় নাগরিকও প্রাণ হারিয়েছেন।

    সন্ত্রাসী হামলার কারণে শোলাকিয়ার খতিব ও ইমাম মওলানা ফরিদউদ্দিন মাসুদ হেলিকপ্টারে চড়ে কিশোরগঞ্জে পৌঁছুলেও নামাজ পড়াতে পারেননি। বিবিসি বাংলার ফারহানা পারভীনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তিনি মনে করছেন শোলাকিয়ায় হামলার লক্ষ্য সম্ভবতঃ তিনিই ছিলেন।

    স্থানীয় একজন সাংবাদিকের বরাতে বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, ঈদগায় প্রবেশের মুখে বসানো চেইকপৌষ্টে সন্ত্রাসীরা প্রথমে ধারালো চাপাতি দিয়ে আক্রমণ করে পুলিসের ওপর। দ্রুত উভয়পক্ষ গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই দু'জন পুলিস সদস্য মারা যান। এ-সময় ঈদগার অভ্যন্তরে মাইকে কোরানের বয়ান চলছিলো, ফলে বাইরের ঘটনা মুসল্লিরা বুঝতে পারেননি।

    সন্ত্রাসী ও পুলিসের বন্দুকযুদ্ধের সময় নিজগৃহেই গুলিবিদ্ধ হন স্থানীয় বাসিন্দা ঝর্ণা ভৌমিক। তিনি তৎক্ষণাৎ প্রাণ হারান। অনুমান করা হচ্ছে, তিনি পুলিসের ছোড়া গুলিতে মারা গিয়েছেন।

    শোলাকিয়ার হামলায় গুলিতে এবং দায়ের কোপে অন্তত নয়জন পুলিস সদস্য আহত হন। নিরাপত্তারক্ষীরা অন্ততঃ একজন 'সন্ত্রাসী'কে হাতেনাতে আটক করেছে। পরে পুলিস, র‍্যাব ও বিজিবির যৌথ অভিযানে আরও দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এ-হামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন