• বাংলাদেশে ইউটিউবের পর এবার 'ধর্ম-বিরোধী' ব্লগ নিষিদ্ধঃ ব্লগারদের নিন্দা
    blog_illustration.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৬ মার্চ ২০১৩, মঙ্গলবারঃ 'ইসলাম-বিরোধী' চলচ্চিত্র ইনৌসেন্স অফ মুসলিমস-এর প্রচার ঠেকাতে ইউটিউব বন্ধ করার পর এবার 'ধর্ম-বিরোধী' আখ্যা দিয়ে কয়েকটি ব্লগ বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশের সরকার। বাংলাদেশের টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) স্থানীয় প্রায় সবক'টি বাংলা ব্লগ-সাইটের পরিচালকদের কাছে এ-মর্মে ইমেইল পাঠিয়েছে।

    ব্লগ নিষিদ্ধির এ-নির্দেশে ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ ও বিদেশের ব্লগাররা। বিটিআরসি'র এ-পদক্ষেপকে 'ক্ষমতার অপব্যবহার' বলে চিহ্নিত করেছেন কেউ-কেউ। মত প্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ক আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা রিপৌর্টার্স উইদাউট বর্ডারের এসিয়া প্যাসেফিক ডেস্কের বেঞ্জামিন ইসমাইল বলেছেন, 'কোন ওয়েবসাইট নিষিদ্ধ করা হতে পারে বিচার প্রক্রিয়ার সিদ্ধান্তের ফলরূপে। আমরা মনে করি বিটিআরসি (ব্লগ নিষিদ্ধ করে) ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে'।

    ব্লগ নিষিদ্ধ করার সাথে-সাথে বিটিআরসি সংশ্লিষ্ট ব্লগ-লেখকদের প্রকৃত পরিচয়, ঠিকানা, টেলিফৌন নম্বর, কম্পিউটারের আইপি ঠিকানা ইত্যাদিও চেয়ে পাঠিয়েছে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্লগসাইট সামহয়্যারইনব্লগ ডট কমের সৈয়দা গুলশান ফেরদৌস জানা নিশ্চিত করেছেন, নির্দেশ মোতাবেক ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিনের সমস্ত লেখা তাঁরা মুছে ফেলেছেন।

    উল্লেখ্য, গতমাসে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে আব্দুল কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায়কে 'যথেষ্ঠ নয়' বলে প্রত্যাখ্যান করে ব্লগাররা ঢাকার শাহবাগে জমায়েতের আয়োজন করে। সেখান থেকে তারা মোল্লার রাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামীর সাথে সম্পর্কিত অভিযোগ তুলে সোনারবাংলা নামক একটি ব্লগ-সাইট বন্ধের দাবী জানায়। বাংলাদেশে সরকার ২০০৯ সালে একবার ফেইসবুক বন্ধ করে দিয়েছিলো। গতমাসেও 'ধর্মীয় বিদ্বেষ' ছাড়ানোর অভিযোগে ১২টি ব্লগ ও ফেইসবুক পাতা বন্ধ করে দেয়।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন