• বাংলাদেশে স্কুল-ছাত্র বোঝাই ট্রাক উল্টে জলে ডুবে গিয়ে ৪৪ জনের মৃত্যু
    Cargo-truck-rescued.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি, ১১ জুলাই ২০১১, সোমবারঃ  বাংলাদেশের চট্টগ্রামে ফুটবল প্রতিযোগিতা শেষে বাড়ী ফেরার পথে স্কুল-ছাত্র ভর্তি একটি ট্রাক উল্টে গিয়ে পাশের ডোবায় পড়লে ৬০-৬৫ যাত্রীর মধ্যে ৪১ স্কুল-ছাত্র সহ ৪৪ জনের মৃত্যু ঘটে। পড়ন্ত অবস্থায় চালকের দায়িত্বে থাকা ‘হেল্পার’ লাফিয়ে পড়ে আত্ম-রক্ষা করে।

    বাংলাদেশী ও আন্তর্জাতিক সংবাদ-মাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে দুটোর দিকে চট্টগ্রামের মিরেশ্বরাইয়ে ফুটবল খেলা দেখে ভাড়াটে ট্রাকে ছাত্ররা নেচে-গেয়ে যখন বাড়ী ফিরছিলো, তখন কাদাযুক্ত রাস্তায় পিছলে গিয়ে অদক্ষ হাতের ট্রাকটি দুর্ঘটনার শিকার হয়। অগভীর জলের খালে পড়া সত্ত্বেও শিশুরা উদ্ধার পায়নি উল্টে যাওয়া ট্রাকটির চার-পাশে উঁচু ঘেরা থাকার কারণে।

    দুর্ঘটনাটি ঘটার পর-পরই স্থানীয় উদ্ধার কর্মীরা জলে-ডোবা ট্রাকটি থেকে শিশুদেরকে উদ্ধার করেন, কিন্তু কচি প্রাণগুলো ধরে রাখার জন্য এ-সময়টুকুও অনেক দেরী।

    অনেক পরে বিকেলের দিকে আসেন সেনাবাহিনী উদ্ধারকারী ও নৌবাহিনীর ডুবুরীর দলের জোয়ানরা। কিন্তু তার আগেই জলে-ডোবা শিশুদের তুলে ৬৫ কিলোমিটার দূরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু দুর্ঘটনা, উদ্ধার ও চিকিৎসা পাবার মধ্য ব্যয়িত সময়ের কারণে কাউকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

    বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্ঘটনার জন্য তাদের মর্ম-বেদনা প্রকাশ করেছেন।

    উল্লেখ্য, বাংলাদেশে সড়ক ও যানবাহন সম্পর্কিত নিরাপত্তা বিধি-বিধান থাকলেও সেগুলো তেমন মানা হয় না বলে প্রতি বছরই প্রচুর সংখ্য মানুষের অকালে মৃত্যু হয়।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন