• বাংলাদেশ ও ভারতীয় হ্যাকারদের পারস্পরিক আক্রমণঃ সাইবার-যুগের প্রতিবাদের ভাষা?
    bd_hackers_attak_indian_websites.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১২, শনিবারঃ  গত ২৪ ঘন্টায় বাংলাদেশের একটি হ্যাকার গ্রুপ ভারতের ১হাজারেরও বেশি ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বলে দাবী করেছে। নিজেদেরকে বাংলাদেশ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার্স (বিবিএইচএইচ) নামে পরিচয়দানকারী এ-গ্রুপটি জানিয়েছে, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত-রক্ষীদের বাংলাদেশী নাগরিক হত্যা বন্ধ করার দাবীতে তারা এ-কর্মে লিপ্ত হয়েছে।

    প্রত্যুত্তরে ভারতের একাধিক হ্যাকার গ্রুপও বাংলাদেশের ওয়েবসাইট হ্যাক করতে তৎপর হয়েছে বলে স্বীকার করেছে বিবিএইচএইচ। ইণ্ডিশেল নামের ভারতীয় একটি হ্যাকার গ্রুপ বাংলাদেশের অনেকগুলো সরকারী ওয়েবসাইটের নিয়ন্ত্রণ কব্জা করেছে। বাংলাদেশের সংবাদ-সংস্থা বিডিনিউজ২৪ জানিয়েছে, বাংলাদেশের সরকারের অন্ততঃ ৪টি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে 'ইণ্ডিয়ান সাইবার আর্মি' নামে পরিচয় দেয়া একটি হ্যাকার গ্রুপ।

    আক্রমণের শিকার হওয়া কয়েকটি ভারতীয় ওয়েবসাইট ঘুরে দেখা গেছে, সেখানে লেখা রয়েছে 'আপনার ওয়েবসাইটটি বাংলাদেশ সাইবার আর্মি কর্তৃক হ্যাক করা হয়েছে'। হ্যাকাররা ভারতের সাইবার আর্মি, সরকার ও হ্যাকার-গ্রুপ ইণ্ডিশেলের উদ্দেশ্যে সেখানে একটি বার্তাও রেখেছে।

    তাদের দাবীগুলোর মধ্যে রয়েছে, বাংলাদেশের ওয়েবসাইট হ্যাক করা থেকে বিরত থাকা, সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিক হত্যা বন্ধ করা, টিপাইমুখ বাঁধ প্রকল্প বন্ধ করা, তিস্তা-নদীর পানি-বন্টন চুক্তি সম্পাদন করা ইত্যাদি। এছাড়াও, সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত হ্যাকার-গ্রুপ এ্যানোনিমাসকে অনুসরণ করে ইউটিউবের মাধ্যমেও একটি বার্তাও প্রচার করেছে বিবিএইচএইচঃ
    http://www.youtube.com/watch?v=eAyx6V5JHi8&

    শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, উভয় দেশেরই হ্যাক হওয়া ওয়েবসাইটগুলো পুনরুদ্ধার করার কাজ চলছে। বাংলাদেশী মন্ত্রণালায়য়ের ওয়েবসাইটগুলো ইতোমধ্যেই পূর্বাবস্থায় ফিরে এসেছে। ভারতের প্রায় সকল সরকারী ও অনেক বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটও ইতোমধ্যেই সচল হয়েছে।

    সর্বশেষ আপডেইটঃ লণ্ডন সময় ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১২ ২৩:৫০

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন