• বাংলাদেশ ভেদ করে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলোর সাথে টেলিযোগাযোগ গড়তে চায় ভারত
    india_northeast_map.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২২ জানুয়ারি ২০১৪, বুধবারঃ  ভৌগলিক কারণে দুর্গম্য ও অনুন্নত উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোয় বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে টেলিযোগাযোগ স্থাপন করার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখছে ভারত। গত পরশু দেশটির প্রধানমন্ত্রী অফিস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতি এ-তথ্য জানানো হয়েছে।

    বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহ-কবলিত পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর কেন্দ্রীর সরকারের প্রভাব বাড়াতে ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে ভারত। কেদ্রীয় সরকারের পরিকল্পনা-মতে, উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সাথে অবশিষ্ট ভারতের যোগাযোগ বাড়াতে সড়ক, রেইল, বিমান ও টেলিযোগাযোগ ব্যাপকভাবে বাড়ানো হবে। নতুন বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্যও পদক্ষেপ নেয়া হবে - আর অংশ হিসেবে জলবিদ্যুৎকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করা হচ্ছে।  উল্লেখ্য, এ-অঞ্চলে প্রস্তাবিত টিপাইমুখ জলিবিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশে ব্যাপক গণ-বিরোধিতা রয়েছে।

    ২০ তারিখে নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এক সভার শুরুতে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বলেন, "উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অবকাঠামো উন্নয়নকে সে-অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়ন-কৌশলের এবং [ভারতের] অন্যান্য অংশের সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে দেখছে [কেন্দ্রীয়] সরকার।" এ-সভায় উপস্থিত ছিলেন আসাম, মণিপুর, মিজোরাম-সহ সকল পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা।

    নাম-অপ্রকাশিত একজন সরকারী কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে বাংলাদেশের ইংরেজী দৈনিক ঢাকা ট্রিবিউন জানিয়েছে, বাংলাদেশ থেকে ইণ্টারনেট ব্যাণ্ডউইড্‌থ আমদানীর প্রস্তাব দিয়েছিলো ভারত গত বছর। তবে বাংলাদেশের আখাউরা থেকে ভারতে সংযুক্ত হওয়ার সে-প্রস্তাবের ব্যাপারে এখনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। ঐ কর্মকর্তা আরও জানান যে নেপাল ও ভূটানও বাংলাদেশ থেকে ইণ্টারনেট ব্যাণ্ডউইড্‌থ আমদানীর আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন