• বিডিআর-বিদ্রোহে পিলখানা গণহত্যা বিচারেরর রায়ঃ ১৫২ জনের ফাঁসি, ১৬১ জনের যাবজ্জীবন
    bangladesh_bdr_mutiny_trials.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৫ নভেম্বর ২০১৩, মঙ্গলবারঃ  বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী কর্তৃক ২০০৯ সালে সঙ্ঘটিত ব্যর্থ বিদ্রোহের সময় পিলখানা গণহত্যার বিচারের রায় দিয়েছে আজ ঢাকার একটি বিশেষ আদালত। এতে অভিযুক্ত ৮৫০ ব্যক্তির মধ্যে বিডিআর-এর প্রাক্তন ডেপুটি এ্যাসিস্ট্যাণ্ট ডাইরেক্টর-সহ ১৫২ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ১৬১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২৫৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে; খালাস দেয়া হয়েছে ২৭৭ জনকে। ৪ জন বিচার চলাকালীন সময়ই মারা যান। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড-প্রাপ্তদের মধ্যে বিরোধীদল বিএনপি'র সাবেক সাংসদ নাসির উদ্দিন আহমদ পিণ্টুও রয়েছেন।

    ২০০৯ সালের ২৫শে ফেব্রুয়ারী বাংলাদেশ রাইফেল্‌স বা সংক্ষেপে বিডিআর-এর বার্ষিক সম্মেলন চলাকালে বিভিন্ন দাবি-দাওয়াকে কেন্দ্র করে বিদ্রোহের সূচনা ঘটে। টানা ৩৩ ঘণ্টা চলার পর সেনাবাহিনীর সশস্ত্র অবরোধের মুখে অবসান হয় রক্তাক্ত সে-বিদ্রোহের, যাতে অন্ততঃ ৭৪ ব্যক্তি প্রাণ হারায়। নিহতদের মধ্যে রয়েছেন সেনাবাহিনীর উচ্চ ও মধ্যম পর্যায়ের ৫৭ জন অফিসার; বাকিরা বেসামরিক ব্যক্তি।

    বিদ্রোহের কারণ হিসেবে বিদ্রোহী সেনারা মূল সেনাবাহিনীর তুলনায় তাঁদের কম মর্যাদা ও কম সুবিধার কথা বলেছিলেন। সেনাবাহিনী থেকে আরোপিত কমাণ্ডিং অফিসারদের ব্যাপারেও তাঁদের ক্ষোভ ছিলো। দীর্ঘদিনের পুঞ্জিভূত ক্ষোভ ও বঞ্চনার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে এ-বিদ্রোহ ঘটে থাকতে পারে বলে সে-সময় প্রচারিত তাৎক্ষণিক সংবাদগুলোতে বলা হয়। তবে পরবর্তীতে হত্যাকাণ্ডের নৃশংসতা ও ব্যাপ্তি পর্যবেক্ষণে সংবাদ-মাধ্যমগুলো সেনাবাহিনীর সাথে সহযোগিতার মাধ্যমে সংবাদ পরবেশন করে ‘বিভ্রান্তি’ দূর করার প্রয়াস পায়।

    বাংলাদেশের ইতিহাসে এতো বড়ো গণ-বিচার বিরল। একই বিচারের রায়ে এতো ব্যক্তির ফাঁসির আদেশও আগে দেখা যায়নি। মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইট্‌স ওয়াচ বলছে, সাধারণতঃ গৃহযুদ্ধ বা শত্রু দেশের সাথে যুদ্ধ-কালে এ-ধরণের গণ-ফাঁসি হওয়া অস্বাভাবিক নয়, তবে শান্তিকালীন সময়ে এ-রকমটা অভূতপূর্ব। দণ্ডপ্রাপ্ত সকলের ফাঁসি কার্যকরা করা হলে বাংলাদেশ মৃত্যুদণ্ড কার্যকরকারী দেশগুলোর তালিকায় সৌদি আরবকে ছাড়িয়ে তৃতীয় স্থানে চলে আসবে।

     

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন