• ভৌটে জিতেছে স্বীকার করার পরও পুতিনকে অভিনন্দন জানাননি ক্যামেরোন
    Putin-wins-in-tears.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৬ মার্চ ২০১২, মঙ্গলবারঃ  রাশিয়ার নব-নির্বাচিত পুরনো প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিপুল বিজয়কে স্বীকার করার পরও ব্যক্তিগতভাবে অভিনন্দন জানাতে পারলেন না প্রাধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোন এবং একই অবস্থান গ্রহণ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ত বারাক ওবামা।

    রুশ সংবাদ-মাধ্যম আরটি জানাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোন আজ ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে টেলিফৌনে কথা বলেছেন এবং ‘ভিন্নতা ও কতিপয় উদ্বেগের জায়গা’ থাকার পরও ‘শক্তিশালী সম্পর্ক’ গড়ে তোলার আশা প্রকাশ করেন, কিন্তু প্রেসিডেন্ট-নির্বাচিত হিসেবে তাঁকে অভিনন্দন জানানো বিষয়টি এড়িয়ে গিয়েছেন।

    এদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল সম্পর্কে ক্যামেরোনের আবাসিক দপ্তর ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বলা হয়েছে ‘এমনি এনজিও জরীপের উপাত্তও পুতিনকে ৫০ শতাংশ ভৌট পেয়েছেন বলে দেখাচ্ছে, যা বিজয়ী হতে প্রয়োজনীয় হারের চেয়ে বেশি।’

    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার জনগণকে অভিনন্দন জানিয়েছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য কিন্তু সে-নির্বাচনে বিজয়ীকে স্পর্শ করেনি।

    মার্কিন স্টেইট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্রী ভিক্টোরিয়া নুল্যাণ্ড এক বিবৃতিতে বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন করাতে যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার জনগণকে অভিনন্দন জানায় এবং এর ফলাফল নিশ্চিত ও শপথ অনুষ্ঠান শেষ হবার পর প্রেসিডেন্ট-নির্বাচিতের সাথে কাজ করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করছে।’

    অপর দিকে জার্মানীর চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মার্কেল ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজী ফৌন করে পুতিনকে নির্বাচনে বিজয়ী হবার জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন। এবং উভয়ই স্বতন্ত্র ভাবে তাঁর সাতে ইতিবাচক সম্পর্ক গড়ে তোলার কথা বলেছেন।

    শুরুতেই যেসব দেশের নেতৃবৃন্দ পুতিনকে উন্মুক্ত অভিনন্দ জানিয়েছে, তাদের মধ্য রয়েছেন ইরান, সিরিয়া, ভেনিজুয়ালা, চীন, জাপান ও কমনওয়েলথে সদস্যগণ।

    বিশ্লেষকদের মতে, পুতিনকে ‘কঠিন মানুষ’ হিসেবে দেখার কারণে পশ্চিমের কাছে তিনি ততো পছন্দীয় নন। ইন্টারনেট ভিত্তিক ম্যাগাজিন ‘অল্টারনেটিভ রাইট’-এর প্রতিষ্ঠাতা রিচার্ড স্পেন্সারকে উদ্ধৃত করে আরটি জানায়, ‘মার্কিন মিডিয়ার বাম ও ডানপন্থী উভয়ই পুতিনকে হুমকি বিবেচনায় একমত, কারণ ওয়াশিংটন যে বিশ্ব-ব্যবস্থা চায়, তাকে তিনি প্রশ্ন করেন।’

    ব্রিটেইনের রুশ বিশেষজ্ঞ মার্টিন ম্যাককলি আরটিকে বলেন, ব্রিটিশ মিডিয়া পুতিনের প্রতি ক্ষ্যাপা, কারণ তাকে দেখা হয় একজন ‘শক্ত মানুষ হিসেবে, যাকে হ্যাণ্ডল করা খুব কঠিন।’ তিনি আরও বলেন, ‘তারা বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মেদভেদেভের প্রতি ইতিবাচক, কারণ তাঁকে মনে হয় অনেক পশ্চিমা ধাচের এবং তিনি কঠিন ভাষা ব্যবহার করেন না, তিনি হুমকি দেন না, ইত্যাদি - তিনি কঠিন মানুষ নন।’

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন