• মিসরে মুবারক-পতনের প্রথম বার্ষিকীঃ জরুরী অবস্থা বহুলাংশে প্রত্যাহার করার ঘোষণা
    Egypt-SCAF-Head.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৪ জানুয়ারী ২০১২, মঙ্গলবারঃ  মিসরের গণ-আন্দোলনে তিন দশকের প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের পতনের প্রথম বার্ষিকীতে, আগামী কাল বুধবার সকাল থেকে দেশটিতে তিন দশক যাবৎ আরোপিত জরুরী অবস্থা প্রত্যাহার করা হবে বলে আজ মঙ্গলবার এক টেলিভিশিত ভাষণে ঘোষণা করেন সুপ্রীম কাউন্সিল ফর আর্ম ফৌর্সেসের প্রধান ফীল্ড মার্শাল হুসেইন তানতাওয়ি।

    গত বছরে দুনিয়া কাঁপানো মিসরীয় গণ-আন্দোলনের অন্যতম প্রধান দাবী ছিলো জরুরী অবস্থার প্রত্যাহার। উল্লেখ্য, ১৯৮১ সালে ইসলামবাদীদের হাতে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আনওয়ার সাদাতের খুন হবার পর মিসরে যে ‘স্টেইট অফ ইমার্জেন্সী’ বা জরুরী অবস্থা জারী করা হয়, পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক তা পুনঃপুন বর্ধিত করেন।

    আজ টেলি-ভাষণে ফীল্ড মার্শাল তানতাওয়ি বলেন, ‘আমি ২৫ জানুয়ারী ২০১২ সকাল থেকে জরুরী অবস্থা সমাপ্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি’। তবে ‘দুর্বৃত্তপনা’ সামলাতে জরুরী অবস্থা প্রয়োগ করা হবে বলে তাঁর ভাষণে উল্লেখ করেন।

    ‘দুর্বৃত্তপনা’ কী এবং ‘দুর্বৃত্ত’ কারা তা ভাষণ স্পষ্ট না হলেও, শব্দটির আড়ালে গণ-আন্দোলনের আপোসহীনদেরকে বুঝানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।  কারণ, ইতিপূর্বে আন্দোলনকারীদের উপর সেনা-নির্যাতন প্রয়োগ-কালে তাদেরক ‘দুর্বৃত্ত’ বলে উল্লখ করা হয়েছে। আর, সে-কারণে সেনাবাহিনীকে বিদ্রূপ করে আন্দোলনকারীদেরকে অতীতে ‘আমরা দুর্বৃত্ত’ বলে স্লৌগান দিতে দেখা গিয়েছে।

    মধ্যপ্রাচ্য-ভিত্তিক সংবাদ-মাধ্যম আল-জাজিরা নব নির্বাচিত একজন সাংসদকে উদ্ধৃত করে জানায়, তাঁর মতে জরুরী অবস্থার প্রকৃত প্রত্যাহার বাস্তবে হয়নি। যুক্তি দেখিয়ে বলা হয়, জরুরী আইনকে হয় পূর্ণ প্রত্যাহার করতে হবে নইলে পূর্ণ প্রয়োগ করতে হবে, মধ্যবর্তী বলে কোনো অবস্থা এখানে নেই।

    উল্লেখ্য, গণ-অভূত্থান পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনে ইসলামবাদী মুসলিম ব্রাদারহূডের সংখ্যগরিষ্ঠতা লাভ করার পর গত কালের প্রথম পার্লামেন্টের অধিবেশনে দলটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাদ কাতাতনি পার্লামেন্টের স্পীকার মনোনীত হয়েছেন। বিধান অনুসারে, পার্লামেন্টের প্রধানতম কাজ হবে একটি নতুন সংবিধান রচনা করার জন্য ১০০ জনের একটি পরিষদ গঠন করা, তার পর তাদের প্রস্তাবিত সংবিধানকে গণভৌটে দেয়া।

    আগামী জুন মাসে অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাধ্যমে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবার পর সেনাবাহিনী ব্যারাকে ফিরে যাবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন