• মুর্সির সমর্থক ও বিরোধীদের সংঘর্ষ কায়রোর রাজপথেঃ সংকটের সমাধান এখনও অনিশ্চিত
    egypt_pro_anti_mursi_supporters_battle_in_cairo.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৩ অগাস্ট ২০১৩, মঙ্গলবারঃ  মিসরে সেনাবাহিনী কর্তৃক ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেণ্ট মোহাম্মদ মুর্সির সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে আজ কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়েছে। কায়রোর রাজপথে উভয় পক্ষ ঢিল ছোঁড়া থেকে শুরু করে সরাসরি শারীরিক সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। পুলিস কাঁদানে গ্যাস, জলকামান ইত্যাদি ব্যবহার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে।

    প্রায় ছয় সপ্তা আগে সরকার-বিরোধী গণবিক্ষোভের মুখে সেনাবাহিনী ইসলামবাদী প্রেসিডেণ্টকে সরে দাঁড়াতে সময় বেঁধে দেয়। মিসরেরর সর্বপ্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেণ্ট মুর্সি তাতে রাজি না হওয়ার ৩রা জুলাই সেনাবাহিনী তাঁকে গ্রেফতার করে ক্ষমতা অধিগ্রহণ করে নতুন প্রেসিডেণ্ট ও প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ দেয়।

    তারপর থেকেই মুর্সির দল মুসলিম ব্রাদারহূডের কর্মী-সমর্থকরা কায়রোর দু'টো স্থানে বিক্ষোভ-অবস্থান চালিয়ে আসছে। অপর দিকে মুর্সি বিরোধীরা বহুল আলোচিত তাহরির স্কোয়ারে অনিয়মিতভাবে সম্মিলিত হচ্ছে। দেশটির জনগণের মধ্যে বিরাজমান বিভক্তি যে মোটেও কমেনি, আজকের সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে তা নতুন করে স্পষ্ট হলো।

    মুসলিম-গরিষ্ঠ মিসরে সপ্তাখানেক সদ্য শেষ হওয়া রমজান মাসে একাধিকবার সংকট নিরসনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিলো। এর মধ্যে সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রের অংশগ্রহণও ছিলো। তবে সেনাবাহিনী ও মুর্সি-সমর্থক, উভয় পক্ষই তাদের অবস্থানে অনড় থাকার কারণে কোনো সমঝোতা হয়নি।

    মুর্সিকে অপসারনের পর থেকে এ-পর্যন্ত কয়েকশ ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছে, এর মধ্যে মুর্সি-সমর্থকদের উপর নিরাপত্তাকর্মীদের গুলিতে অন্ততঃ ৮০ জনের মৃত্যুর ঘটেছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে বর্তমান অচলাবস্থা চলতে থাকলে সেনাবাহিনী বলপ্রয়োগে মুর্সি-সমর্থকদেরকে রাজপথ থেকে উচ্ছেদ করতে চেষ্টা করতে পারে। সেক্ষেত্রে আরও রক্তক্ষয় ও জাতীয় বিভক্তির ঝুঁকি আরও বাড়বে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন