• যুক্তরাষ্ট্রে পুলিসের হাতে কালো মানুষ খুনঃ বিক্ষোব্ধ সমাবেশে 'স্নাইপারের গুলিতে' ৫ পুলিসের মৃত্যু
    usa_dallas_attack.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৮ জুলাই ২০১৬, শুক্রবারঃ যুক্তরাষ্ট্রে পুলিসের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ লোকের 'বেআইনী' মৃত্যুর প্রতিবাদ সমাবেশে আজ আততায়ীর গুলিতে পাঁচজন পুলিস সদস্য প্রাণ হারিয়েছে। লুইসিয়ানা ও মিনেসোটায় গতকাল নিহতদের স্মরণে টেক্সাসের ডালাস শহরে আয়োজিত সমাবেশে এ-ঘটনা ঘটেছে।

    ব্রিটেনের সময় হিসেবে ঘটনাটি আজ ঘটলেও, আমেরিকার স্থানীয় সময়ানুসারে এটি গতরাতের ঘটনা। বিবিসি বলছে, ২০০১ সালের ১১ই সেপ্টেম্বরে ট্যুইন টাওয়ার হামলার পর এটিই সবচেয়ে বেশি পুলিসী হতাহতের ঘটনা।

    পুলিস জানিয়েছে, তাদের আরও সাতজন সদস্য আহত হয়েছে। একজন পথচারীও গুলিবিদ্ধ হয়ে এখন হাসপাতালে রয়েছেন। হামলাস্থলের কাছ থেকে অন্ততঃ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

    পুলিস শুরুতে একাধিক আক্রমণকারীরার কথা উল্লেখ করলেও, নিউইয়র্ক টাইম্‌স জানাচ্ছে একজনই হামলায় জড়িত ছিলো। হামলার পর পুলিসের ধাওয়ায় মিকাহ জন্‌সন নামের আততায়ী একটি পার্কিং ভবনে আশ্রয় নেয়। পুলিসের সাথে কয়েকঘণ্টা আলোচনার পরও আত্মসমর্পনে রাজী না হওয়ায় পুলিস একটি রবোট পাঠায় তার কাছাকাছি, যেটি একটি বিষ্ফোরণের মাধ্যমে তাকে হত্যা করে।

    প্রেসিডেণ্ট বারাক ওবামা এ-ঘটনাকে "হিসেব-কষা ঘৃণ্য হামলা" বলে এর নিন্দা করেছেন। ন্যাটোর সম্মেলন উপক্ষে তিনি এ-মুহূর্তে পৌল্যাণ্ডের ওয়ারস'তে অবস্থান করছেন।

    এ-সপ্তায় অন্ততঃ দু'স্থানে পুলিসের গুলিতে দৃশ্যতঃ নিরপরাধ কালো মানুষ খুন হন। এর প্রতিবাদেই চলছিলো আজকের বিক্ষোভ সমাবেশ। ২০১৪ সালে ফার্গুসনে অনুরূপ এক হামলায় শেতাঙ্গ পুলিসের গুলিতে আরেক কৃষ্ণাঙ্গ যুবকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে আমেরিকার বহুস্থানে 'ব্ল্যাক লাইভস্‌ ম্যাটার' ব্যানারে বর্ণবাদ-বিরোধী আন্দোলন গড়ে ওঠে। 

    আজকের সমাবেশকে পুলিস ও প্রত্যক্ষদর্শীরা শান্তিপূর্ণ বলে আখ্যা দিয়েছে। আয়োজক 'ব্ল্যাক লাইভ্‌স ম্যাটার' নিন্দা জানিয়েছে এ-হামলার।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন