• যুদ্ধাপরাধের সন্দেহে দুই ব্রিটিশ সেনা গ্রেফতারিতঃ শিশুকে যৌন-নির্যাতনের অভিযোগ
    british_warcrime_in_afganistan_2_arrested.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২০ জানুয়ারী ২০১২, শুক্রবারঃ  আফগানিস্তানের হেল্‌মন্দ প্রদেশে যুদ্ধাপরাধ সঙ্ঘটনের অভিযোগে আটক করা হয়েছে দুই ব্রিটিশ সেনাকে। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ভিন্ন-ভিন্ন ঘটনায় তাঁরা আনুমানিক ১০ বছর বয়সী দুই আফগানী বালক-বালিকার উপর যৌন-নির্যাতন করেছেন। ডেইলি টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, সন্দেহিত সেনারা সঙ্ঘটিত অপকর্মের ভিডিও ধারণ করেন ও পরে সহকর্মীদেরকে দেখান।

    প্রকাশিত খবরে জানা গিয়েছে, সেনাদের মধ্যে একজন সার্জেন্ট ও অন্যজন সেপাই। দু'জনেই ২য় মার্সিয়ান ব্যাটালিয়নের সদস্য বলে প্রকাশ হলেও সামরিক সূত্রগুলো তা নিশ্চিত করতে অপারগতা জানিয়েছে। উল্লেখ্য, মাত্র এক সপ্তাহ আগে ফাঁস হওয়া অনুরূপ একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছিলো যে, আফগানী মৃতদেহের মুখমণ্ডলে কয়েকজন মার্কিন সেনা সম্মিলিতভাবে প্রস্রাব করছেন।

    আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এ-ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। তিনি বলেন, 'বিদেশী সেনাদের অনৈতিক আচরণের সাম্প্রতিক উত্থানে আফগানিস্তানের সরকার অত্যন্ত বিরক্ত'। তিনি মনে করেন, 'এতে জনগণের আত্মবিশ্বাস কমছে'।

    কাবুল থেকে বিদেশী সেনাদের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার কার্স্টেন বলেছেন, 'এ-ধরণের অভিযোগ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে নেয়া হয় এবং তদন্তেই নির্ধারিত হবে এর সত্যাসত্য'। তিনি আরও বলেন, 'যদি কোন সেনা-সদস্য অনাকাঙ্খিত কোন আচরণ বা অপরাধ করেছে বলে জানা যায়, তাহলে তাঁকে নিজ-দেশের আইনী কাঠামোতে বিচারের সম্মুখীন করা হবে'। ব্রিটেইনের রয়্যাল মিলিট্যারী পুলিস এ-ঘটনায় ইতোমধ্যেই একটি তদন্ত শুরু করেছে এবং তারই প্রক্রিয়ার উল্লিখিত দুই সেনা-সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

    ব্রিটিশ সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ এটিই প্রথম নয়। এর আগে ইরাকের বসরা নগরীতে একজন হৌটেল-রিসিপশনিস্টকে পিটিয়ে হত্যা করার দায়ে ১৪ জন ব্রিটিশ সেনার বিচার করা হয় যাতে ডৌনাল্ড পায়েন নামের একজন কর্পৌরালকে ১ বছরের সাজা দেয়া হয়েছিলো।

পাঠকের প্রতিক্রিয়া

আপনারা কি বাংলা বানান পরিবরতন করে ফেলবেন?

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন