• রানা প্লাজা ধসঃ ক্ষতিপূরণে অসম্মত কোম্পানীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ লণ্ডনে
    DSC_0133.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৫ মে ২০১৩, শনিবারঃ  বাংলাদেশে পোশাক-কারখানা ধসে প্রাণ-হারানো শ্রমিকদেরকে এখনও পুর্ণ ক্ষতিপূরন না দেওয়ায় আজ লণ্ডনে কয়েকটি জনপ্রিয় কোম্পানীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়েছে। গত ২৪শে এপ্রিল ঢাকার নিকটবর্তী সাভারে রানা প্লাজা নামের একটি আট তলা ভবন ধসে গিয়ে ১১২৭ পোশাক-কর্মী নিহত হয়; আহত হয়েছে সহস্রাধিক ব্যক্তি। 

    লণ্ডনের ব্যস্ত অক্সফৌর্ড স্ট্রীটে অবস্থিত ম্যাঙ্গো ও বেনেতোনের খুচরা বিক্রয়কেন্দ্রের সম্মুখে এ-বিক্ষোভের আয়োজন করে ছাত্রদের সংগঠন পিপল এ্যাণ্ড প্ল্যানেট। তাদের সাথে যোগ দেয় ওয়ার অন ওয়াণ্ট, দ্য সাউথ এসিয়া সলিডারিটি গ্রুপ, ফ্রীডম উইদাউট ফীয়ার প্লাটফরম, ইউকে ফেমিনিস্তা এবং লেবার বিহাইণ্ড লেবেল। 

    আয়োজক সংগঠন পিপল এ্যাণ্ড প্ল্যানেটের রুথ ফক্স বলেন, 'এ-বেদনাদায়ী ঘটনার মাসাধিককাল পরেও ম্যাঙ্গো ও বেনেতোন তাদের জন্য পোশাক প্রস্তুতরত অবস্থায় নিহত ও আহত শ্রমিকদের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করছে। এটি অগ্রহণযোগ্য।'  তিনি আরও বলেন, 'এ-কোম্পানিগুলো বাংলাদেশের সাথে কাজ করে বিপুল অর্জন মুনাফা করে। অথচ যখন বড়ো কোন দূর্ঘটনা ঘটে, তারা চোখ বুজে থাকে। আমরা নিহত ও আহতদের পরিবারের জন্য অনতিবিলম্বে ক্ষতিপূরণ দাবি করি'। 

    প্রাণ-হারানো শ্রমিকদের স্মরণে কালো পোশাক পরা বিক্ষোভকারীদের হাতে  ফুল ও মোমবাতি  দেখা যায়। এ-সময় তাঁরা একটি কালো কফিনও বহন করেন, যাতে লেখা ছিলো 'বাংলাদেশ ফ্যাক্টরি ডিজাস্টারঃ ১১২৭ ডেড' অর্থাৎ বাংলাদেশে কারখানা-বিপর্যয়ঃ ১১২৭ মৃত। তাঁদের বাহিত প্ল্যাকার্ডেও পূর্ণ ক্ষতিপূরণের দাবি জানানো হয়। 

    উল্লেখ্য, ধসে-পরা ভবনে ম্যাঙ্গো ও বেনেতোনের মনোগ্রাম পাওয়া গেলেও উভয় কোম্পানিই অর্থনৈতিক ক্ষতিপূরণ দিতে অস্বীকার করেছে। তবে, এ-সপ্তায় বেনেতোন তাদের জন্য পোশাক বানানো শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সহায়তা দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। গত ২২ মে এ-মর্মে কোম্পানীটি বাংলাদেশের এনজিও ব্র্যাক-এর সাথে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে। 

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন