• রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পুতিন বিজয়ী ঘোষিতঃ মস্কৌতে পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ
    Russian-rally.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ৫ মার্চ ২০১২, সোমবারঃ  গতকাল অনুষ্ঠিত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির প্রার্থী ও প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনকে ভৌট গণনার ফলাফলে আজ বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনের ঘোষিত ফলের পক্ষে পুতিন সমর্থকগণ এবং বিপক্ষে তাঁর বিরোধীগণ রাজধানী মস্কৌতে ভিন্ন-ভিন্ন দুটি চত্তরে সমাবেশ অনুষ্ঠিত করেন।
     
    রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের প্রধান আজ আনুষ্ঠানিকভাবে ভ্লাদিমির পুতিনকে নির্বাচনে বিজয়ী ও রাশিয়ার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেছেন। ভৌট গণনার ফলাফল প্রকাশে বলা হয় যে, ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির প্রার্থী ভ্লাদিমির পুতিন ৬৩.৬% ভাগ ভৌট পেয়েছেন।

    পুতিনের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কমিউনিস্ট পার্টির গেনাদী যুগানভ পেয়েছেন ১৭.২ ভাগ ভৌট। ৭.৯% ভৌট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন ধনকুবের স্বতন্ত্র প্রার্থী মিখাইল প্রখোরভ।

    লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী ভ্লাদিমির ঝিরিনোভস্কী ও এ্যা জাস্ট রাশিয়া পার্টির সের্গেই মিরোনভ যথাক্রমে ৬.২% ও ৩.৯% ভৌট লাভ করে চতুর্থ ও পঞ্চম হয়েছেন।

    এক্সিট পোলেও প্রাপ্ত উপাত্তের সাথে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত ভৌট-উপাত্তের সাথে ঘনিষ্ট সাদৃশ্য লক্ষ্য করা যায়। রাশিয়ার পাবলিক অপিনিয়ন রিসার্চ সেন্টারের (ভিসিআইওএম) জরীপে দেখা যায়, ভৌট-কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে আসা লোকদের মধ্যে ৫৮.৩% পুতিনের পক্ষে ভৌট দিয়েছেন। অন্যদিকে, গেনাদী যুগানভের পক্ষে সমর্থন দেখা যায় ১৭.৭% ভৌটারের। একই ভাবে মিখাইল প্রখোরভের পক্ষে ৯.২%, ভ্লাদিমির ঝিরিনোভস্কী পক্ষে ৮.৫% ও সের্গেই মিরোনভের পক্ষে ৪.৮% ভৌটার তাঁদের সমর্থন ব্যক্ত করেন।

    প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার আগেই পুতিন-বিরোধীরা সোমবারে মস্কৌতে ‘নির্বাচন-কারচুপি’র বিরুদ্ধে ‘ফর ফেয়ার ইলেকশন’ নামে কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আজ মস্কৌর পুশকিন স্কোয়ারে পুলিসের হিসাব-মতে ১৪,০০০ এবং সংগঠকদের মতে ২০,০০০ থেকে ৪০,০০০ মানুষ সমাবেশিত হয়ে পুতিনের পদত্যাগ দাবী করেন। অনুমোদিত সময়ের পরও পুতিন-বিরোধীরা পুশকিন চত্তর দখল করে থাকায় পুলিস ৫০ - মতান্তরে ১০০ - ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে বলে পশ্চিমা সংবাদ-মাধ্যমগুলো জানাচ্ছে।

    পুতিন-বিরোধীদের বিক্ষোভ চলা-কালেপুশকিন স্কোয়ারের সমাবেশে উপস্থিত হয়ে বিক্ষোভকারীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন নির্বচনে তৃতীয় অবস্থানে থাকা শতোকোটিপতি মিখাইল প্রখোরভ।  মঞ্চ থেকে প্রখোরভ তাঁর সমর্থকদের উদ্দেশ্য বলেন, ‘ভীত না হয়ে আজ এখানে আসার জন্য আমি আপনাদের ধন্যবাদ জানাই এবং ধন্যবাদ জানাই প্রত্যেককে - যাঁরা নির্বাচন অন্যায্য হওয়া সত্ত্বেও - আমার পক্ষে তাঁদের কন্ঠ উচ্চকিত করেছেন। আমি আপনাদের কাছে ঋণী।’

    এদিকে পুতিনের সমর্থগণ মস্কৌর ক্রেমলিনের অদূরে মানেঝনায়া স্কোয়ারে সমাবেশিত হয়ে তাঁদের নেতার বিজয় উদযাপন করেন। পুলিসের হিসাব-মতে মানেঝনায়া স্কোয়ারে ১৫,০০০ পুতিন-সমর্থক একত্রিত হয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন।

    তার পূর্ব-রাতে নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফল প্রকাশের পর এই স্কোয়ারেই ১১০,০০০ মানুষ সমাবেশিত হন, যেখানে ভ্লাদিমির পুতিন ও বিদায়ী প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ উপস্থিত হয়ে তাঁদের দলীয় বিজয় ঘোষণা করেন। সেখানে বিজয় সংবাদে আবেগ-তাড়িত পুতিনকে অশ্রু-সজল চোখে বক্তৃতা করতে দেখা যায়, যা পরবর্তীতে তিনি ‘বাতাসের তোড়ে চোখে জল এসেছে’ বলে জানান।

    পুতিন তাঁর বিজয়-উল্লসিত বক্তৃতায় বলেন, ‘আমরা একটি উন্মুক্ত ও সৎ লড়াইয়ে জিতেছি। আমরা প্রমাণ করেছি যে আমাদের উপর কেউই কোনো কিছু চাপিয়ে দিতে পারবে না।’ তিনি আরও বলেন, যারা রাশিয়ার ধ্বংস দেখতে চায়, আজ তারা ব্যর্থ হয়েছে।

    পরবর্তীতে উত্থাপিত নির্বাচন-কারচুপি সম্পর্কে পুতিন বলেন, এ-রকম কোনো কিছু হয়ে থাকলে তা তদন্ত করে দেখা হবে।

    উল্লেখ্য, রোববারের ভৌটগ্রহণ প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে ইতিহাসে এই প্রথম বারের মতো ‘ওয়েব-বেইসড্‌ মনিটরিং’ পদ্ধতির ব্যবহার করা হয়েছে গতকাল অনুষ্ঠিত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে।

    এদিকে, কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ও দ্বিতীয় স্থান অধিকার করা প্রার্থী গেনাদী যুগানভ বলেন, ৪ঠা মার্চের নির্বাচনের ফলাফল চূড়ান্তরূপে গ্রহণ করার এখনও সময় আসেনি। তিনি বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সমস্ত তদন্ত সম্পন্ন না হওয়া অবধি আমি কয়েক দিনের জন্য কোনো মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকবো।’

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন