• লণ্ডনে পার্লামেণ্টের বাইরে 'সন্ত্রাসী' হামলাঃ পুলিসসহ নিহত ৪
    Westminster_incident_alleged_car_involved.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - লণ্ডন, ২২ মার্চ ২০১৭, বুধবারঃ আজ দুপুরে লণ্ডনের ওয়েষ্টমিন্‌ষ্টারে অবস্থিত পার্লামেণ্ট ভবনের বাইরে নিরীহ পথচারীদের ওপর গাড়ী চালিয়ে দিয়ে ও পরে ছুরি ব্যবহার করে হামলা চালানো হয়েছে। শুরুতে স্কটল্যাণ্ড ইয়ার্ড একে সাধারণ অপরাধ মনে করলেও এখন একে 'সন্ত্রাসী হামলা' হিসেবে বিবেচনা করছে। এ-ঘটনায় এ-পর্যন্ত একজন পুলিস অফিসার-সহ চার ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

    বেলা দু'টো চল্লিশের পরপর এই ঘটনা ঘটতে শুরু করে, যখন সংসদের ভেতরে অধিবেশন চলছিলো। এ-সময় প্রধানমন্ত্রী থেরিসা ম্যেকে পুলিস নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যায়।

    এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত সংবাদে দেখা যাচ্ছে, একটি গাড়ী ওয়েষ্টমিন্‌ষ্টার সেতুর ফুটপাথে পথচারীদের ওপরে এলোপাথারি আঘাত করতে থাকে। গাড়ীর আরোহী বড়ো দু'টো ছোরা হাতে এরপর পার্লামেণ্ট প্যালেসের আঙিনায় প্রবেশ করে একজন পুলিস অফিসারকে আঘাত করে। দ্বিতীয় একজন অফিসার সেখানেই আক্রমণকারীকে গুলি করে।

    পলিটিক্স হৌম ম্যাগাজিনের সম্পাদক কেভিন শোফিল্ড পার্লামেণ্টের প্রেস গ্যালারী থেকে ঘটনার কিছু অংশের প্রত্যক্ষ করেছেন।

    স্কটল্যাণ্ড ইয়ার্ড এ-ঘটনাকে শুরুতে 'ফায়ার আর্মস ইন্সিডেণ্ট' বলে চিহ্নিত করলেও বিকেল চারটা নাগাদ এটিকে 'টেরোরিষ্ট ইন্সিডেণ্ট' বলে বিবেচনা করতে শুরু করে।

    আক্রান্ত পুলিস অফিসার ও হামলাকারী ইতিমধ্যে মারা গিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পুলিস কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও আরও দু'জন পথচারী প্রাণ হারিয়েছেন, যারা হামলাকারীর গাড়ীর আঘাতে আহত হয়েছিলেন।

    গুলির শব্দে পার্লামণ্টের ভেতরে ও বাইরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। লণ্ডন ট্র্যাভেল কর্তৃপক্ষ সাময়িকভাবে ওয়েষ্টমিন্‌ষ্টার ষ্টেইশনটি বন্ধ করে দিয়েছে।

    লণ্ডন মেয়র সাদিক খান এক বিবৃতিতে বলেছেন, "আমি ভারপ্রাপ্ত [পুলিস] কমিশনারের সাথে কথা বলেছি। মেট্রৌপলিটান পুলিস এ-ঘটনা দেখছে।"

    মেট্রৌপলিটান পুলিস এক পৃথক বিবৃতিতে বলেছে, "কাউণ্টার টেরোরিজম কম্যাণ্ড তদন্ত শুরু করেছে"।

     

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন