• লেভিসন ইনকোয়ারিতে ব্রুকসের অনেক তথ্য প্রকাশঃ হান্টের পদত্যাগ দাবী জোরালো
    Leveson-inquiry-Rebekah.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১২ মে ২০১২, শনিবারঃ  নিউজ অফ দ্য ওয়ার্ল্ডের ফৌন-হ্যাকিং কেলেঙ্কারি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোনের দপ্তর ১০ নং ডাউনিং স্ট্রীটের প্রতিক্রিয়া কেমন হওয়া উচিত জানতে চেয়ে অভিযুক্ত পত্রিকাটির নির্বাহী রেবেকা ব্রুকসের কাছে কালচার সেক্রেট্যারী জেরেমি হান্ট যে-ইমেইল পাঠিয়েছিলেন, তা জনসম্মুখে প্রকাশিত হওয়ার পর তাঁর পদত্যাগের দাবী আরও জোরদার হয়ে উঠেছে।

    রুপার্ট মার্ডকের কোম্পানী নিউজ কর্পোরশেনের সাথে একাট্টা হয়ে জেরেমি হান্ট গোপনে কাজ করেছেন মর্মে অভিযোগ করে লেবার পার্টির ডেপুটি লীডার হ্যারিয়েট হারম্যান বলেছেন, কালচার সেক্রেট্যারী স্বপদে বহাল থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।

    ‘ফৌন হ্যাকিং এবং সাংবাদিকতার নীতি’ বিষয়ক লেভিসন ইনকোয়ারিতে শুক্রবার হাজিরা দিয়ে নিউজ ইন্টারন্যাশনালের সাবেক প্রধান নির্বাহী রেবেকা ব্রুকস জানিয়েছেন, ফৌন হ্যাকিংকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য যে-কোনও পাবলিক ইনকোয়ারি এড়াতে নিজের জন্য এবং ১০ নং ডাউনিং স্ট্রীটের করণীয় সম্পর্কে পরামর্শ চেয়েছিলেন জেরেমি হান্ট।

    লেভিসন ইনকোয়ারির শুনানীতে আরও বলা হয়, ২০১১ সালের জুন মাসে নিউজ কর্পোরশেনের লবীয়িস্ট ফ্রেডেরিক মিশেল ইমেইলের মাধ্যমে রেবেকা ব্রুকসকে জানিয়েছিলেন, বিস্কাইবি’র নিয়ন্ত্রণ লাভের ক্ষেত্রে নিউজ কর্পোরশেনের প্রস্তাবের পক্ষে ‘অত্যন্ত সহায়ক’ বিবৃতি দিতে প্রস্তুত জেরেমি হান্ট। ওই ইমেইলে ব্রুকসের উদ্যেশ্যে মিশেল আরও লিখেছিলেন, ফৌন হ্যাকিংয়ের অভিযোগ সত্ত্বেও বিস্কাইবি হস্তান্তরের প্রক্রিয়া অনুমোদন পেয়ে যাবে নিউজ কর্পোরেশন।

    লেভিসন ইনকোয়ারিতে প্রকাশিত ইমেইলের সূত্র ধরে লেবার পার্টির ডেপুটী লীডার হ্যারিয়েট হারম্যান কালচার সেক্রেট্যারী জেরেমি হান্ট সম্পর্কে বলেন,  ‘হয়তো তিনি জানতেন না ৮ বিলিয়ন পাউণ্ড মূল্যের হস্তান্তর প্রক্রিয়ার পেছনে কী ঘটে যাচ্ছে; সেই ক্ষেত্রে তাঁর নিজ পদে বহাল থাকা উচিত হবে না এবং তাকে বরখাস্ত করা উচিত। অথবা এমনও হতে পারে, জেনে-শুনে বিষয়টিকে তিনি ধামা-চাপা দিয়ে অন্যদের কাঁধে দায় চাপাচ্ছেন, সেই ক্ষেত্রেও তাঁকে বরখাস্ত করা উচিত হবে।’

    সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা যাচ্ছে, লেবার পার্টির নেতা এড মিলিব্যাণ্ড কালচার সেক্রেট্যারীর হিসেবে জেরেমি হান্টকে পদত্যাগ করার জন্য সরাসরি আহবান জানিয়েছেন।

    সেক্রেটারি জেরেমি হান্টের এক মুখপাত্র অবশ্য বলেছেন, ফ্রেডেরিক মিশেলের যোগাযোগ ছিলো কেবল জেরেমি হান্টের বিশেষ উপদেষ্টা অ্যাডাম স্মিথের সাথে, যিনি নিউজ কর্পোরশেনের সাথে অতিমাত্রায় ঘনিষ্ঠতা বজায় রাখার অভিযোগ স্বীকার করে নিয়ে ইতোমধ্যে পদত্যাগ করেছেন। মুখপাত্র আবারও জোর দিয়ে বলেছেন, জেরেমি হান্ট বরাবরই সততার সাথে তাঁর দায়িত্ব পালন করেছেন এবং লেভিসন ইকনোয়ারিতে তিনি তাঁর অবস্থান তুলে ধরবেন।

    রেবেকা ব্রুকস আরও যা বললেনঃ

    শুক্রবার লেভিসন ইনকোয়ারিতে সাক্ষ্য দিতে এসে রেবেকা ব্রুকস অনেক অপ্রকাশিত সম্পর্কের কথা প্রকাশ করে দিয়েছেন। রেবেকা বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোন তাঁর মোবাইলে ফৌনে টেক্সট-বার্তা পাঠিয়ে ‘লটস অফ লাভ’ লিখে শেষ করতেন।

    রেবেকা ব্রুকস আরও জানান, ফৌন হ্যাকিং কেলেঙ্কারিতে তিনি পদত্যাগ করতে বাধ্য হওয়ার পর প্রকাশ্যে তাঁর পক্ষে কথা বলতে না পেরে প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোন তার ব্যক্তিগতভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

    গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে দেশের সবচেয়ে শক্তিধর ব্যাক্তিবর্গের সাথে সম্পর্কের বর্ণনা দেন রেবেকা ব্রুকস। কয়েকজন প্রধানমন্ত্রীর সাথে ব্রুকসের প্রায় অর্ধশতো লাঞ্চ এবং ডিনার করার ঘটনা প্রকাশিত হয়েছে তাঁর দেয়া সাক্ষ্য থেকে।

    ১৯৯৮ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত সময়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের সাথে কমপক্ষে ৩০ বার দেখা করেছেন কিম্বা খাওয়া-দাওয়া করেছেন রেবেকা ব্রুকস। টনি ব্লেয়ারের উত্তরসূরি গর্ডন ব্রাউনের সাথেও ৫ বারের বেশি সাক্ষাত করেছেন তিনি, যদিও গর্ডন ব্রাউনের স্ত্রী সারাহ ব্রাউনের সাথেই তাঁর বেশী ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিলো বলে জানিয়েছেন রেবেকা। ২০১০ সালের সাধারন নির্বাচনের পর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ডেইভিড ক্যামেরোনের সাথে কমপক্ষে একবার লাঞ্চ এবং চার বার ডিনার করতে মিলিত হয়েছিলেন রেবেকা।

    প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরোনের সাথে রেবকা ব্রুকসের বন্ধুত্বের সম্পর্ক আছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ২০১০ সালের ২৩ ডিসেম্বর ক্রিসমাস ডিনার পার্টিতে যোগ দিতে অক্সফোর্ডশায়ারে রেবেকার বাড়িতে গিয়েছিলেন ডেইভিড  ক্যামেরোন।

    ইউকেবেঙ্গলি লক্ষ্য করে, দৃশ্যতঃ গণ-নির্বাচিত জন-প্রতিনিধি হলেও রাষ্ট্র-ক্ষমতা প্রাপ্ত রাজনীতিবিদগণ দেশ-বিদেশের বিত্তশালী ব্যক্তিদের সাথে কিংবা তাঁদের প্রতিনিধিদের সাথে ব্যক্তিগত সম্পর্ক রক্ষা করে চলেন এবং এই সম্পর্ক ‘নৈর্ব্যক্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়াকে’ প্রভাবিত করে বিত্তশালীদের আরও বিত্ত বৈভব বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন