• সাময়িক পিছু হটাঃ ইসরায়েল-মার্কিন যৌথ মিসাইল-প্রতিরক্ষা অনুশীলন স্থগিত
    1_wa.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৫ জানুয়ারী ২০১২, রোববারঃ  ইসরায়েল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের পরিকল্পিত মিসাইল প্রতিরক্ষা অনুশীলন, যা আগামী কয়েক সপ্তাহ’র মধ্যে শুরু হবার কথা ছিলো, তা স্থগিত করা হয়েছে এ-বছরের গ্রীষ্মকাল পর্যন্ত, যা দৃশ্যতঃ ইরান মোকাবেলায় দেশ দুটোর খানিকটা পিছু-হঠা বলে প্রতীয়মান হয়।

    আজ ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা দেশটির চ্যানেল ২ টেলিভিশনে বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সাথে উত্তেজন বৃদ্ধি এড়াতে চায় বলে অনুশীলন স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

    ইসরায়েল বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রের সাথে তার যৌথ অনুশীলনটি পূর্ব-নির্ধারিত এবং সাম্প্রতিক যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সাথে ইরানের চলমান উত্তেজনার সাথে এর কোনো সম্পর্ক নেই। কিন্তু ওয়াশিংটন মনে করে, বিশ্বের সংবাদ-মাধ্যমগুলোতে ইরান আক্রমণের সম্ভাবনা নিয়ে যে-সমস্ত সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, তার আলোকে অনুশীলন চললে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাবে।

    উল্লেখ্য, ‘অস্টেয়ার চ্যালেইঞ্জ ১২’ সাঙ্কেতিক নামে ইসরায়েল-মার্কিন যৌথ প্রতিরক্ষা অনুশীলন উপলক্ষ্যে কয়েক হাজার মার্কিন সেনা ইতোমধ্যে ইসরায়েলে অবস্থান নেবার পর ইরয়ানও তার এলিট রেভ্যুলিউশনারী গার্ডের ওয়ার গেইম ‘গ্রেইট প্রোফেট’ অনুশীলনের কথা ঘোষণা করে।

    এদিকে, ইরানের উপর চাপ তৈরী করার লক্ষ্যে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা নীতিগতভাবে ইরানী তেল আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপে একমত হয়েছেন। প্রতিক্রিয়ায় ইরান বলেছে, এ-নিষেধাজ্ঞা অরোপিত হলে সে হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দেবে।

    ইতোমধ্যে হরমুজ প্রাণালী উন্মুক্ত রাখার প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব সফর করে বলে এসেছেন, বিশ্বশক্তি এক হয়ে হরমুজ প্রণালী উন্মুক্ত রাখবে।

    আজ বিদেশমন্ত্রী উইলিয়াম হেইগ বলেছেন, ইরানকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরী থেকে নিরস্ত করার জন্য ব্রিটেইন সমস্ত উপায়ই টেবিলে রেখেছে, যার মধ্য দেশটির বিরুদ্ধে ব্রিটেইনের সামরিক অভিযানও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। 

     

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন