• সিরিয়ায় আবারও ইসরায়েলী বিমান-হামলাঃ মধ্যপ্রাচ্যে আঞ্চলিক যুদ্ধ কি সমাসন্ন?
    israel_bombs_syria_may2013_again_01.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি- ৫ মে ২০১৩, রোববারঃ  আজ আবারও ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে সিরিয়ার অভ্যন্তরে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। জবাবে সিরীয় উপ-পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফয়সাল মেকদাদ সিরিয়ার এ-'আগ্রাসনকে' যুদ্ধ ঘোষণার শামিল বলে বর্ণনা করেছেন। আরব লীগ ইসরায়েলের হামলার নিন্দা করে জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পর্ষদকে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছে।

    সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সন্নিকটে জামরায়া সেনা কেন্দ্রে দূর থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত করে। ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির নিশ্চিত কোন খবর এখনও পাওয়া যায়নি। তবে রাশিয়া টুডে জানিয়েছে ৩০০ ব্যক্তির প্রাণ হারানোর গুজব ছড়িয়ে পড়েছে দামেস্কে।

    ইসরায়েলী নেতারা বিমান হামলায় তাঁদের দায়ীত্ব স্বীকার বা অস্বীকার কোনটিই করেননি। তবে যুক্তরাষ্ট্রের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইসরায়েলী হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

    মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রশ্নে প্রভাবশালী অংশীদার ইরান ও মিসর ইসরায়েলী হামলার নিন্দা জানিয়েছে। মিসরের প্রেসিডেণ্টের দফতর এক বিবৃতিতে ইসরায়েলী আক্রমন আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করেছে এবং সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ পরিস্থিতি আরও জটিল করে তুলবে। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রহিম মেহমানপারাস্ত ইসরায়েলী হামলাকে 'আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তার হুমকি আখ্যায়িত করে এর নিন্দা করেছেন বলে জানিয়েছে ফার্স নিউজ এজেন্সি।

    উল্লেখ্য, সৌদি আরব ও মিসর-সহ সমগ্র আরব লীগ, যা প্রধানতঃ সুন্নীদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে শিয়া মতাবলম্বী প্রেসিডেণ্ট বাশার আল-আসাদের সরকারের বিরোধী সুন্নী বিদ্রোহীদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। এর মধ্যে সৌদি আরব ও কাতার বিদ্রোহীদেরকে অর্থ, অস্ত্র ও প্রশিক্ষণ দিয়ে সরাসরি সহায়তা করছে এমন অসংখ্য প্রতিবেদন স্থানীয় ও পশ্চিমা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন