• সিরিয়ায় জাতিসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকঃ যুদ্ধ-বিরতি 'ভঙ্গ করেছে' উভয় পক্ষই
    syria_un_blue_helmet.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৫ এপ্রিল ২০১২, রোববারঃ  জাতিসঙ্ঘের প্রাক্তন মহাসচিব কফি আনানের ৬-দফা-ভিত্তিক মধ্যস্থতায় গত ১০ তারিখ থেকে সিরিয়ায় শুরু হওয়া যুদ্ধ-বিরতি প্রত্যক্ষ করতে আজ ৬ জন নিরস্ত্র সামরিক পর্যবেক্ষক পাঠিয়েছে জাতিসঙ্ঘ। গতকাল নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত এক প্রস্তাব অনুসারে প্রেরিতব্য ৩০ জনের সামরিক পর্যবেক্ষকের অগ্রগামী দল হিসেবে এদেরকে পাঠানো হয়, কিন্তু এদিকে ইতোমধ্যে উভয় পক্ষই যুদ্ধবিরতি ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ করেছে সিরিয়ার সরকার ও সরকার-বিরোধীরা।

    গত বছরের মার্চ মাস থেকে শুরু হওয়া আল-কায়েদা সমন্বিত ও পশ্চিমা শক্তিগুলোর সামরিক, কুটনৈতিক, রাজনৈতিক ও প্রচারযন্ত্রের সমর্থনপুষ্ট সশস্ত্র বিদ্রোহ গৃহযুদ্ধে রূপ নেয়। বিদ্রোহ দমনে সরকারী বাহিনী ধীর-গতিতে হলেও সাম্প্রতিক মাসগুলোতে উত্তরোত্তর সাফল্য পেতে শুরু করে। এমন অবস্থায় আরব লীগ ও জাতিসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি হয়ে যুদ্ধ-বিরতির লক্ষ্যে কুটনৈতিক তৎপরতা শুরু করেন কফি আনান।

    আনানের প্রস্তাবিত ৬-দফায় রাজী হয়ে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ যুদ্ধ-বিরতি মেনে চলতে শুরু করেন এ-মাসের ১০ তারিখ থেকে। আনুষ্ঠানিকভাবে বিদ্রোহী বাহিনীও যুদ্ধ-বিরতি মেনে নিয়েছে দাবী করলেও সরকারী বাহিনী ও বেসামরিক স্থাপনার ওপর হামলা বৃদ্ধি করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বিদ্রোহীদের দাবী-মতে সরকারী সেনাবাহিনীও পালটা হামলা চালিয়েছে - উভয় ঘটনাই যুদ্ধ-বিরতি ভঙ্গের শামিল। তবে কফি আনান মনে করছেন, বিচ্ছিন্ন সহিংসতা ঘটলেও যুদ্ধ-বিরতি মোটা দাগে মেনে চলা হচ্ছে।

    বর্তমান কিস্তিতে পাঠানো ৩০ জন সামরিক পর্যবেক্ষকের সাথে শীঘ্রই আরও ২৫০ জন পর্যন্ত সদস্যবিশিষ্ট একটি পর্যবেক্ষক দল পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন আনানের মুখপাত্র আহমেদ ফৌজি। এ-লক্ষ্যে আগামী সপ্তাহে জাতসঙ্ঘে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানান ফৌজি। সামরিক পর্যবেক্ষকের অগ্রগামী দলের কাজ হবে যুদ্ধরত পক্ষগুলোর সাথে যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা করা ও যুদ্ধ-বিরতি সঠিকভাবে পালিত হচ্ছে কি-না তা জাতিসঙ্ঘকে অবহিত করা।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন