• সিরিয়া গৃহযুদ্ধঃ বিদ্রোহী যোদ্ধাদেরকে বেতন দিচ্ছে তুরষ্ক ও উপসাগরীয় সুন্নি দেশগুলো
    syria_rebels.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৩ অক্টোবর ২০১২, মঙ্গলবারঃ সুন্নী-সংখ্যাগরিষ্ঠ সিরিয়ার সংখ্যালঘু শিয়া প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে উৎখাত করতে চলমান 'আল-কায়েদা-সমন্বিত'  সুন্নি বিদোহী যোদ্ধাদেরকে বেতন দিচ্ছে তুরষ্ক ও উপসাগরীর দেশগুলো। বার্তা সংস্থা এএফপি আজ জানিয়েছে প্রতিবেশি তুরষ্কের পাশাপাশি কাতার, সৌদি আরব, বাহরাইন, আরব আমিরাত, কুয়েত ইত্যাদি সুন্নি দেশগুলো সক্রিয়ভাবে আল-আসাদ বিরোধী যোদ্ধাদেরকে সাহায্য করে চলেছে।

    টানা কয়েক মাস বিনা-বেতনে যুদ্ধ করার পর এবার ১৫০ মার্কিন ডলার করে বেতন পাচ্ছে আলেপ্পো অঞ্চলের বিদ্রোহী যোদ্ধারা। পক্ষ বদল করে বিদ্রোহীদের সাথে যোগ দেয়া কর্ণেল আব্দুল সালাম হুমাইদি তদারকি করছেন এ-বেতন-বণ্টন। তিনি জানান এখন সকলে মাসিক ১৫০ ডলার করে বেতন পেলেও আগামিতে এ-নিয়মে বদল আনা হতে পারে, তখন যারা বিবাহিত ও সম্মুখ সমরে অংশ নিচ্ছে তাদের জন্য ভিন্ন ব্যবস্থা করা হবে।

    বিদ্রোহীদের তাওহীদ ব্রিগেইডের কমাণ্ডার হাজি আল-বাব জানিয়েছেন, কাতারের অর্থে তাঁর যোদ্ধাদের বেতন দেয়া হচ্ছে, তবে শুধুমাত্র তারাই অর্থ পাচ্ছে যারা অন্তত দু'মাস ধরে যুদ্ধ করছে। হালাব আল-শাহবা ব্রিগেইডের কমাণ্ডার শেখ মাহমুদ মুজাদামি নিশ্চিত করেছেন যে, তাঁর যোদ্ধাদেরকে দেয়া বেতনের অর্থ আসছে 'কাতার ও উপসাগরীয় ইসলামি দেশগুলো থেকে'।

    উল্লেখ্যঃ গত বছর উত্তর আফ্রিকার আরেক আরব দেশ লিবিয়া জনতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে উৎখাতের জন্য কাতার ও অন্যান্য উপসাগরীয় দেশগুলো সেখানকার ইসলামবাদী জঙ্গি সংগঠনগুলোতে অর্থ, সমরাস্ত্র, আশ্রয় ও রাজনৈতিক সহযোগীতা দিয়েছে। অবশেষে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, ব্রিটেইন ও ইতালি-সহ পশ্চিমা দেশগুলোর অংশগ্রহণে ন্যাটোর সামরিক আগ্রাসনের মাধ্যমে গাদ্দাফিকে হত্যা করা হয়।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন