• সুইৎসারল্যাণ্ডে চলছে সিরিয়া শান্তি আলোচনা 'জিনিভা-২'
    syrian_peace_talks_goverment_rep.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৫ জানুয়ারি ২০১৪, শনিবারঃ সিরিয়ায় ৩৫ মাস ধরে চলে আসা গৃহযুদ্ধে এই প্রথম বারের মতো সরকারের প্রতিনিধি ও বিদ্রোহীদের একটি দল আলোচনার টেবিলে বসেছে। রাশিয়ার উদ্যোগে, যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনে ও জাতিসঙ্ঘের তত্ত্বাবধানে সুইৎসারল্যাণ্ডে গত ২২ তারিখ থেকে শুরু হয় 'জিনিভা-২' নামে পরিচিত পাওয়া বহুল প্রতীক্ষিত এ-আলোচনা।

    প্রথম তিন দিনের আলোচনায় সরকার ও বিরোধীরা একে অন্যকে দোষারোপ করতেই মূলতঃ সময় ব্যয় করেন। জাতিসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি লাখদর ব্রাহিমি বলেন, "কেউ আশা করেনি এ-আলোচনা খুব সহজ হবে।" এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিলো আলোচনা ভেঙ্গে পড়বে, তবে তিনি আজ শনিবার উভয় পক্ষকে একই কক্ষে ফিরিয়ে আনতে সমর্থ হন।

    শান্তি আলোচনার ঘোষিত লক্ষ্যগুলোর মধ্যে প্রধানটি হচ্ছে গৃহযদ্ধের ইতি টানা। তবে বিদ্রোহীরা চাইছে প্রেসিডেণ্ট বাশার আল-আসাদকে সরিয়ে দেয়া হোক, যা সরকারীপক্ষ শুরুতেই নাকচ করে দিয়েছে।  বিদ্রোহীদের একজন মুখপাত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে আজ রয়টার্স জানিয়ে, বিদ্রোহীদের দিক থেকে আজকের আলোচনার প্রধান বিবেচ্য হচ্ছে, সাময়িক যুদ্ধবিরতি এবং বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত কিন্তু সরকারীসেনা কর্তৃক পরিবেষ্টিত হম্‌স নগরে ত্রান পৌছানো।

    'জিনিভা-২' আলোচনায় অংশ নেওয়া বিদ্রোহীদের সঙ্ঘ 'সিরিয়ান ন্যাশনাল কোয়ালিশন' মূলতঃ পশ্চিমা সমর্থিত প্রবাসী সিরীয়দের সমন্বয়ে গঠিত। অন্যদিকে যুদ্ধের মাঠে সরকারের বিরুদ্ধে প্রধান সামরিক শক্তি হিসেবে চিহ্নিত ইসলামবাদীদের জোট 'ইসলামিক ফ্রণ্ট' এ-আলোচনা-প্রচেষ্টা প্রত্যাখ্যান করে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে।

    সিরিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র ইরানকে প্রথমে আলোচনায় অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানালেও পরে যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধিতার মুখে তা প্রত্যাহার করে নেয় জাতিসঙ্ঘ।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন