• স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরাও রাস্তায় নামবে ৩০ জুনঃ প্রতিবাদ নয় প্রতিরোধের অঙ্গীকার
    students-protest.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি, ২০ জুন ২০১১, সোমবারঃ  ‘ন্যাশনাল ক্যাম্পেইন এ্যাগেইনস্ট ফীস এ্যান্ড কাটস’ ঘোষণা করেছে, শিক্ষক ও পাবলিক সেক্টরের কর্মজীবীদের আহুত আগামী ৩০ জুনের ধর্মঘটের দিন লন্ডনের স্কুল-কলেজের হাজার-হাজার ছাত্রছাত্রীরাও ক্লাস ছেড়ে রাস্তায় নামবে সরকারের উচ্চশিক্ষা নীতি ও বরাদ্দ কর্তনের বিরুদ্ধে।

    ইতোমধ্যে ট্যাক্স-ফাঁকিবাজ বড়ো-বড়ো কোম্পানীর বিরুদ্ধে ‘ডাইরেক্ট এ্যাকশন’ করা ‘ইউকে আনকাট’ও ঘোষণা দিয়েছে যে তারাও ৩০ শে জুনের ধর্মঘটে রাস্তায় নামবে।

    ইউনিভার্সিটি কলেজ অফ লন্ডন (ইউসিএল)-এর ছাত্র ও ‘ন্যাশনাল ক্যাম্পেইন এ্যাগেইনস্ট ফীস এ্যান্ড কাটস’-এর মাইকেল চেসাম বলেন, ‘ক্রিসমাসের আগে ছাত্র আন্দোলনই প্রধান-প্রধান ট্রেইড ইউনিয়নকে এ্যাকশনে নামতে উৎসাহিত করেছে, এবং আমরা ৩০ জুন আবার সেখানে শক্তি নিয়ে নামবো।’

    তিনি বলেন, ‘ছাত্র আন্দোলনের অন্যতম সাফল্য হলো যে আমরা ‘এ’ থেকে ‘বি’ পর্যন্ত মার্চ করে যাবার পরোক্ষ পদ্ধতি ত্যাগ করে রাস্তায় ও ক্যাম্পাসে ডাইরেক্ট এ্যাকশনের পথ ধরেছি। গণ স্ট্রাইক হচ্ছে সেটারই যৌক্তিক সম্প্রাসারণ’।

    ছাত্রনেতা চেসাম বলেন, ‘আমরা ওখানে প্রতিবাদ করতে নয়, সক্রিয়ভাবে রুখতে যাবো।’

    আন্দোলনকারী সংগঠকদের উদ্বৃত করে দৈনিক গার্ডিয়ান জানায়, তারা মনে করছেন, বৃহত্তর বিক্ষোভ আন্দোলন, অবস্থান ধর্মঘট এবং ওয়াক-আউট কর্মসূচি সরকারী কর্তন নীতির বিরুদ্ধে জনগণের মধ্যে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলবে, যা কিনা সাম্প্রতিক কালে ইউরোপ জুড়ে - বিশেষ করে স্পেইনে ও গ্রীসে - সংঘটিত আন্দোলনের দ্বারা উৎসাহিত হয়েছে।

    আন্দোলনের সংগঠকেরা ৩০ জুনের জন্য লন্ডনে যে ডাইরেক্ট এ্যাকশনের পরিকল্পনা করেছেন, তার মধ্যে রয়েছে সিটি অফ লন্ডন ও অক্সফৌর্ড স্ট্রীট-সহ ওয়েস্টমিনস্টারে কর্মসূচি পালন (অর্থাৎ ট্যাক্স-ফাঁকিবাজ কোম্পানীগুলোতে চড়াও হওয়া)। এছাড়াও ট্রাফালগার স্কোয়ার দখল এবং টিইউসির গত মার্চের বিক্ষোভে দোকান-পাট ভাঙ্গচুরকারী গ্রুপ ‘ব্ল্যাক ব্লক’-এ যোগ দেবার জন্য ফেইসবুকেও আহবান জানানো হচ্ছে সংগঠকদের পক্ষ থেকে।

    ইউকেবেঙ্গলির বিশ্লেষণে বলা হচ্ছে, তিউনিসিয়া ও মিশরের তাহরির স্কোয়ারের আন্দোলন থেকে প্রেরণাপ্রাপ্ত হয়ে স্পেইন ও গ্রীস-সহ ভূমধ্যসাগরী ইউরোপীয় দেশগুলোতে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে যে নব-জাগরণ শুরু করেছে, তার ঢেউ ব্রিটেইনেও এসে লেগেছে। তবে, মিশরের মতো তা যে শান্তিপ্রিয়ই হবে তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন