• হিজবুল্লাহর অস্ত্রাগারে বিষ্ফোরণঃ ইসরায়েলের 'ডিজিটাল আক্রমণ'?
    hezbollah_captures_cia_assets_in_lebanon.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৫ নভেম্বর ২০১১, শুক্রবারঃ গত বুধবার দক্ষিণ-লেবাননের ওয়াদি আল-জাবাল আল-কাবির উপত্যকায় হিজবুল্লাহর একটি অস্ত্রাগারে বিষ্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ইসরায়েলের সংবাদপত্র ওয়াইনেটনিউজ জানিয়েছে, এটি হিজবুল্লাহর উপরে ইসরায়েলি নিরাপত্তাবাহিনী আইডিএফ-এর গোয়েন্দা-সংস্থা 'আমান'-এর একটি 'ডিজিটাল আক্রমণ'। হিজবুল্লাহ এ-ঘটনার ব্যাপারে কোন মন্তব্য করেনি।

    পত্রিকাটি জানায়, হিজবুল্লাহ্‌ বৎসরাধিক-কাল যাবৎ চেষ্টা করে আসছিল ইসরায়েলের ড্রৌন পরিচালনার গ্রাউন্ড-সিগ্ন্যাল কী-করে কাজ করে তা বুঝতে, যেন তারা তা বানচাল করতে সমর্থ হয়। তাদের এ-আগ্রহের সুযোগ নিয়ে ইসরায়েল ইচ্ছাকৃতভাবে বিষ্ফোরক বহনকারী একটি ড্রৌন 'ক্র্যাশ-ল্যান্ডিং' করায় লেবাননে অভ্যন্তরে - যা পরিকল্পনা-মতোই হিজবুল্লাহ্‌র হাতে পড়ে। হিজবুল্লাহ্‌র টেকনিশিয়ানরা সামরিক স্থাপনার অভ্যন্তরে নিয়ে ড্রৌনটিকে নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর সময় ইসারয়েল থেকে দূর-নিয়ন্ত্রন প্রক্রিয়ায় তাতে রক্ষিত বিষ্ফোরকের বিষ্ফোরণ ঘটায়।

    দক্ষিণ-লেবাননে অবস্থানরত জাতিসঙ্ঘের শান্তিরক্ষী-বাহিনী লেবাননের ইংরেজী দৈনিক ডেইলি স্টারকে জানিয়েছে তারা বিষ্ফোরণের ব্যাপারে অবগত আছেন। 'আমাদের কাছে এই মুহূর্তে আর কোন তথ্য নেই, আমরা খোঁজ-খবর নিচ্ছি' - যোগ করেন জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর মুখপাত্র আন্দ্রী তেনেন্তি। বিষ্ফোরণস্থলটি জাতিসঙ্ঘ নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে অবস্থিত হওয়ার জাতিসঙ্ঘের অধীনে এ নিয়ে একটি আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরু হয়েছে।

    উল্লেখ্যঃ ইরানে ইসরায়েলী সামরিক হামলায় অব্যাহত হুমকির মুখে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে লড়বে বলে অঙ্গীকার পূনর্ব্যাক্ত করেছে লেবাননের সবচেয়ে প্রভাবশালী রাজনৈতিক ও সামরিক সংগঠন হিজবুল্লাহ।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন